বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মূল উদ্দেশ্য ছিল মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংস করা : কৃষিমন্ত্রী     আগামীকাল ইতিহাসের ভয়াবহতম গ্রেনেড হামলার ১৫তম বার্ষির্কী     প্রকল্পের ভুল এ্যাসেসমেন্ট হলে দায়ী কর্মকর্তা শাস্তি পাবে : প্রধানমন্ত্রী     একনেকে তথ্য ভান্ডার সুরক্ষাসহ ১২ প্রকল্পের অনুমোদন     এডিস নির্মূলে ডিএনসিসির চিরুনি অভিযান শুরু     নতুন ওষুধে ভালো কাজ হচ্ছে: সাঈদ খোকন     তিস্তা চুক্তি হবে : জয়শঙ্কর     দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক শুরু    

বৃষ্টিতেও মুখরিত কক্সবাজার সৈকত

  আগস্ট ১৪, ২০১৯     ১৪     ৯:২৭ অপরাহ্ণ     আরও
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : ঈদুল আযহার ছুটিতে দেশের প্রধান পর্যটন কেন্দ্র কক্সবাজারে ছুটেছেন ভ্রমণ পিপাসুরা। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মাঝেও তারা সমুদ্র সৈকতে বর্ষা উপভোগ করছেন । তবে আনন্দ উপভোগে রয়েছে বেশ কিছু সর্তকতা ও বাধা। যার অন্যতম উত্তাল সাগর। সেখানে অধিকাংশ পর্যটক এসেছেন ২/৩ দিনের জন্য। বৃষ্টিতে অনেকেই হয়ে পড়েছেন ঘরবন্দী।

ঈদুল আযহার দিন কক্সবাজারে বৃষ্টি ছিল না। তার পর থেকে হালকা বর্ষণ লেগেই আছে। সাগরও রয়েছে উত্থাল। আবহাওয়া বিভাগ উপকুলে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া পরিস্থিতির জন্য কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরসহ অন্যান্য বন্দরগুলোতে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দিয়ে রেখেছে। এ অবস্থায় কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন জোয়ার-ভাটার সময় না জেনে সাগরে গোসল করতে নামার ব্যাপারে পর্যটকদের অধিক সতর্কতা অবলম্বন করতে অনুরোধ জানিয়েছেন।

সূত্র জানায়, কক্সবাজার সাগর পাড়ের তারকা মানের হোটেলগুলোর কক্ষ ঈদের ছুটির জন্য অনেক আগে থেকে বুকিং ছিল। এসব হোটেলের চাহিদা সবচেয়ে বেশী। অনেকেই তারকা মানের হোটেলগুলোতে কক্ষ না পেয়ে অন্যান্য হোটেল-মোটেলের কক্ষ বুকিং নিয়েছেন। রাজধানী ঢাকার মালিবাগ মৌচাক এলাকা থেকে আসা চাকরিজীবী মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন-‘আমি ঈদের বেশ ক’দিন আগেই সাগর পাড়ের তারকা হোটেল সীগালে কক্ষ ভাড়া নিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু হোটেলের সব কক্ষ অগ্রিম ভাড়া হয়ে যাবার কারনে না পেয়ে অন্য একটিতে উঠেছি।’ তিনি জানান, পরিবার নিয়ে বুধবার এসেছেন এবং শুক্রবার ফিরে যাবেন ঢাকায়।

কক্সবাজার লাইট হাউজ এলাকার নিসর্গ কটেজের ম্যানেজার মোহাম্মদ সোহেল বলেন,'এবারের ঈদের ছুটিতে তুলনামূলক কম পর্যটক কক্সবাজারে এসেছেন। যারা এসেছেন তারা মঙ্গলবার ও বুধবার থাকার জন্য। একদিকে বর্ষা মৌসুম, দ্বিতীয়ত ডেঙ্গু পরিস্থিতি এবং যানজট সমস্যার কারনে অনেকে ঘর থেকে বের হতে চাননি। তাছাড়া সেন্টমার্টিন্স দ্বীপে বেড়ানোর জন্যও অনেকেই আসনে কক্সবাজারে। কিন্তু বর্তমানে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারনে সেন্টমার্টিন্স দ্বীপে পর্যটক জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে।'

এদিকে কক্সবাজারের সৈকতসহ চকরিয়ার ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্কসহ অন্যান্য পর্যটন ষ্পটগুলোতে স্থানীয় ভ্রমণকারিদের ভীড় লেগে রয়েছে।

উত্তরণবার্তা/এআর

 



কোরবানির মাংসের অন্যরকম হাট!

  আগস্ট ১৩, ২০১৯     ১৩৪৮

পুরনো খবর