মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
ঢাকা সময়: ১২:৫৫

যে কারণে মাকে ৫ টুকরো করে হত্যা করেন হুমায়ুন

উত্তরণ বার্তা  প্রতিবেদক  : নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় চাঞ্চল্যকর পাঁচ টুকরো করে নারীকে হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। এ হত্যাকাণ্ডের শিকার ওই নারীর ছেলে হুমায়ুন কবিরসহ তার সাত সহযোগী মিলে তাকে হত্যা করে খণ্ডিত টুকরোগুলো ধানক্ষেতে ফেলে রেখে যায়। পরে এ ঘটনায় নিহত নুর জাহানের ছেলে হুমায়ুন কবির বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।  

মামলার সূত্র ধরে নোয়াখালী জেলা পুলিশ তদন্তে নেমে এ ঘটনায় হত্যার সঙ্গে সরাসরি ছেলে জড়িত থাকার বিষয়টি উঠে আসে। একইসঙ্গে তার সাত সহযোগী মিলে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি আনোয়ার হোসেন।

আজ বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্যগুলো তিনি নিশ্চিত  করেন।  

চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি আনোয়ার হোসেন আরও জানান, এ ঘটনায় সাত আসামির মধ্যে পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। এরমধ্যে দুই জন আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।

হত্যার বিষয়ে নিহত নারীর ছেলে হুমায়ুন কবির পুলিশকে জানায়, তার ভাই বেলাল মারা যাওয়ার সময় কিছু টাকা ঋণ রেখে যান। ওই ঋণের টাকা পরিশোধের জন্য হুমায়ুনকে চাপ দিতে থাকলে তিনি এই বিষয়ে তার মাকে বললে তার মা ওই ঋণের টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তিনি এ চাপ সহ্য করতে না পেরে তার মাকে হত্যা করেন।

এর আগে বুধবার (৭ অক্টোবর) বিকেল ৫টার দিকে পুলিশ উপজেলার চরজব্বার ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর জাহাজমারা গ্রামের প্রভিডা ফিডের পেছনের একটি ধানক্ষেত থেকে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

উত্তরণ বার্তা/এআর

     FACEBOOK