শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
ঢাকা সময়: ০৪:৪৭
ব্রেকিং নিউজ

ক্ষুদ্র ও মাঝারী উদ্যোক্তাদের জন্য আরো বেশী অর্থায়ন দরকার : শিল্পমন্ত্রী

ক্ষুদ্র ও মাঝারী উদ্যোক্তাদের জন্য আরো বেশী অর্থায়ন দরকার : শিল্পমন্ত্রী

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন ক্ষুদ্র ও মাঝারী উদ্যোক্তাদের (এসএমই) জন্য আরো বেশী অর্থায়নের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন। তিনি বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারী উদ্যোক্তাদের আরো বেশী অর্থায়নের মাধ্যমে দেশকে শিল্প-সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিতে সরকারের পাশাপাশি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ সংশ্লিষ্ট সকলের ভূমিকা রাখা দরকার।
 
শিল্পমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরেবাংলানগরস্থ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শতভাগ দেশী পণ্যের সবচেয়ে বড়ো আয়োজন ১০ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। দশ দিনব্যাপি এ মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার, শিল্প সচিব জাকিয়া সুলতানা ও এফবিসিসিআই’র সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন। এতে সভাপতিত্ব করেন এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারপার্সন অধ্যাপক ড. মো. মাসুদুর রহমান এবং স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফাউন্ডেশনের ‘পরিচালক পর্ষদ’র সদস্য এনায়েত হোসেন চৌধুরী।
 
আজ বৃহস্পতিবার থেকে আগামী ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১০ দিনব্যাপি শতভাগ দেশী পণ্যের এ মেলায় উদ্যোক্তাদের জন্য ৩২৫টি প্রতিষ্ঠানের ৩৫১টি স্টল স্থান পেয়েছে। এবারের মেলায় ৬০ শতাংশ নারী এবং ৪০ শতাংশ পুরুষ উদ্যোক্তা অংশগ্রন নিচ্ছেন। এ বছর মেলায় আগত দর্শনার্থীদের কাছে এসএমই ফাউন্ডেশনের পরিচিতি ও কর্মসূচি তুলে ধরার লক্ষ্যে এসএমই ফাউন্ডেশনের একটি সেক্রেটারিয়েট, মিডিয়া সেন্টার, রক্তদান কেন্দ্র, ক্রেতা-বিক্রেতা মিটিং বুথের পাশাপাশি বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের আওতাভুক্ত প্রতিষ্ঠানেরও স্টল বসানো হয়েছে। 
 
‘জাতীয় শিল্পনীতি ২০২২’ অনুযায়ী উচ্চ অগ্রাধিকার/অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত খাত কৃষি/খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও কৃষি যন্ত্রপাতি, আইসিটি, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, হালকা প্রকৌশল, পাট ও পাটজাত পণ্য, প্লাস্টিক, হস্ত ও কারু শিল্পের সাথে সম্পৃক্ত এসএমই প্রতিষ্ঠানগুলোকে মেলায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা প্রাঙ্গণ দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। এবারের মেলায় অংশ নিচ্ছে ফ্যাশন ডিজাইন খাতের ১৩০টি প্রতিষ্ঠান। এছাড়া খাদ্য/কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ পণ্যের ৪৫টি, হস্ত ও কারু শিল্পের ৩৮টি, চামড়াজাত পণ্য খাতের ৩৬টি, পাটজাত পণ্যের ৩৫টি, আইসিটি পণ্য-সেবার ৮টি, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্যের ৬টি, ইলেকট্র্যিাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স খাতের ৩টি এবং প্লাস্টিক পণ্যের ৫টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে।
 
এসএমই ফাউন্ডেশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ১০ দিনের মেলার পাশাপাশি মেলা প্রাঙ্গণে আগামী ২৭, ২৮ ও ২৯ নভেম্বর এসএমই উদ্যোক্তাদের জন্য সহজ অর্থায়ন, নারী-উদ্যোক্তা, প্রযুক্তি, আইসিটি ও ক্লাস্টার উন্নয়নের ওপর ৫টি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।
উত্তরণবার্তা/এসএ
 
 

  মন্তব্য করুন
     FACEBOOK
আরও সংবাদ