শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯
ঢাকা সময়: ১৭:৩৫

পিরোজপুরে দুর্গোৎসবকে ঘিরে উৎসবের আমেজ

পিরোজপুরে দুর্গোৎসবকে ঘিরে উৎসবের আমেজ

উত্তরণবার্তা ডেস্ক : সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজাকে ঘিরে পিরোজপুর জেলার সর্বত্র উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।মহামারী করোনার কারণে গত দু’বছরের দুর্গা পূজায় এ আনন্দ উৎসব কিছুটা ম্লান থাকলেও আসন্ন দুর্গোৎসবে সনাতন ধর্মালম্বীদের মাঝে সাজ-সাজ রব পরিলক্ষিত হচ্ছে। দেবী দুর্গাকে বরণ করে নেয়ার জন্য তারা ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে। জেলার বিভিন্ন এলাকার দুর্গামন্দির গুলোতে প্রতিমা তৈরির শেষ পর্যায়ের কাজ চলছে দ্রুত গতিতে। পিরোজপুর পৌর এলাকার কালীবাড়ি, আখড়াবাড়ী, রাজারহাট, পালপাড়া, রায়েরকাঠী, কৃষ্ণনগর এবং টোনা ইউনিয়নের চলিশা বাজার, কুন্ডুপাড়া, দাসপাড়া ও মূলগ্রাম বাজারের বিভিন্ন মন্দির ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে। মন্দিরে মন্দিরে এখন চলছে প্রতিমায় রং তুলির কাজ। শাস্ত্রীয় বিধান মতে এ বছর দেবী দুর্গা গজে আগমন করবেন এবং নৌকায় গমন করবেন। পিরোজপুর জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মোঃ নাহিদ ভূইয়া জানান, এবার জেলায় ৫৭৮ টি পূজা মন্ডবে দুর্গা পূজার আয়োজন চলছে।

সরকার এসব পূজা মন্ডপের সভাপতি-সম্পাদকের মাঝে বিতরণের জন্য ২৮৯ মেটিক টন চাল বরাদ্দ দিয়েছে। প্রতিটি মন্দিরে সমহারে এ চাল বিতরণ করা হবে। জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুখরঞ্জন বেপারী জানান সবচেয়ে বেশি পূজা হচ্ছে নেছারাবাদ উপজেলায়। নেছারাবাদে এবার ১৩২টি, পিরোজপুর সদর উপজেলায় ৬৬টি, ভান্ডারিয়া উপজেলায় ৯৫টি, নাজিরপুর উপজেলায় ১২২টি, মঠবাড়িয়া উপজেলায় ৯৫টি, কাউখালী উপজেলায় ৩৯টি, এবং ইন্দুরকানী উপজেলায় ২৯টি মন্ডপে প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান জানান, এ জেলায় সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব যথাযথ ভাবে পালনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। পূজা উপলক্ষে সরকারের বরাদ্দকৃত চাল পূজা শুরুর পূর্বেই প্রতিটি মন্দির কমিটির কর্তৃপক্ষের কাছে পৌছানো হবে। পূজা শুরুর দিন থেকে বিসর্জন পর্যন্ত প্রতিটি মন্দিরে পুলিশ, আনসার ছাড়াও র‌্যাব এর ভ্রাম্যমাণ টিম দায়িত্ব পালন করবে। পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান জানান, সকল মন্দিরে সুষ্ঠ এবং শান্তিপূর্ণ ভাবে দুর্গা পূজা সম্পন্ন করার লক্ষ্যে যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে। উল্লেখ্য ১ অক্টোবর থেকে শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হবে এবং ৫ অক্টোবর বুধবার বিজয়া দশমীর মধ্য দিয়ে শেষ হবে সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব।
উত্তরণবার্তা/এআর

  মন্তব্য করুন
     FACEBOOK