শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯
ঢাকা সময়: ১৭:৫৬

যথাযোগ্য মর্যাদায় নোবিপ্রবিতে জাতীয় শোক দিবস পালিত

যথাযোগ্য মর্যাদায় নোবিপ্রবিতে জাতীয় শোক দিবস পালিত

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) যথাযোগ্য মর্যাদায় হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।১৫ আগস্ট সোমবার জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নোবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলমের নেতৃত্বে সকাল ১০টায় একটি শোক র‍্যালি প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শেষ হয়। এরপর ১৫ আগস্ট নিহত সকল শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে নোবিপ্রবি কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এসময় বিভিন্ন ইনস্টিটিউট, বিভাগ, হলসমসূহ, বিভিন্ন সংগঠন ও পরিষদের পক্ষ থেকে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।এর আগে সকালে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে শোক দিবসের কর্মসূচির শুরু হয়। দিনের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিল আলোচনা সভা ও নোবিপ্রবি কেন্দ্রীয় মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সকাল ১১টায় বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক বিপ্লব মল্লিকের সঞ্চালনায় ও নোবিপ্রবির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকীর সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম। উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘আমি আজ এই শোকাবহ দিনে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৫ আগস্ট নিহত সকল শহিদের প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা। জাতির পিতার মহান আত্মত্যাগ আমরা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করি। সারাটি জীবন তিনি এদেশের গরিব, দুঃখি মেহনতি মানুষের জন্য উৎসর্গ করেছেন, নির্যাতিত হয়েছেন, তবুও কখনও মাথা নত করেননি।এই দেশ যতদিন থাকবে, এই পতাকা যতদিন থাকবে, বাংলার মাটি, বাংলার আকাশ-বাতাস যতদিন থাকবে ততদিন বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকবেন আমাদের হৃদয়ে। পরিশেষে আমি জাতির পিতা এবং তার পরিবারের সকল শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা ও তাঁদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বক্তব্য শেষ করছি, জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক’

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের সভাপতি ও জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক নোবিপ্রবির মাননীয় উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন, অন্যদের মাঝে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও শিক্ষা বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ, পরিচালক আইআইটি অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেন।সামাজিক বিজ্ঞান ও মানবিক অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. দিব্যদ্যুতি সরকার, ভাষা শহিদ আবদুস সালাম হলেন প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান, রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন, নোবিপ্রবি অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন পলাশ, কর্মচারীদের পক্ষে আবদুল্লাহ-আল মামুন ও শিক্ষার্থীদের পক্ষে মিফতাহুল হাসান ও মো. শাহরিয়ার।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদ সমূহের ডিন, ইনস্টিটিউটসমূহের পরিচালক, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, হলসমূহের প্রভোস্টবৃন্দ, দপ্তরসমূহের পরিচালক, শিক্ষক সমিতি ও অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দসহ ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ অংশ নেয়। এদিকে সোমবার বাদ যোহর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে উপস্থিত ছিলেন নোবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম এবং শিক্ষক সমিতি ও অফিসার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দসহ ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।
উত্তরণবার্তা/এআর

  মন্তব্য করুন
     FACEBOOK
আরও সংবাদ