বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯
ঢাকা সময়: ১৪:০৮
ব্রেকিং নিউজ

কোক স্টুডিও বাংলায় গেয়ে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন টাঙ্গাইলের মিতু

কোক স্টুডিও বাংলায় গেয়ে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন টাঙ্গাইলের মিতু

উত্তরণবার্তা ডেস্ক : চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে যাত্রা শুরু করে কোক স্টুডিও বাংলা। তারপর থেকে নিয়মিত গান উপহার দিচ্ছে শ্রোতাদের। এবার নবীন কণ্ঠশিল্পী কানিজ খন্দকার মিতুকে সামনে আনলো প্রতিষ্ঠানটি। ‘সব লোকে কয়’ শিরোনামের লালন সংগীতে কণ্ঠ দিয়ে নিজের জাত চেনালেন টাঙ্গাইল থেকে উঠে আসা এই শিল্পী। ২১ জুন মঙ্গলবার কোক স্টুডিও বাংলার ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পেয়েছে গানটি। এর সংগীতায়োজন করেছেন শায়ান চৌধুরী অর্ণব। গানটি প্রকাশ্যে আসার পর থেকে দারুণ প্রশংসা কুড়াচ্ছেন মিতু।

অভিব্যক্তি প্রকাশ করে ইরিন নামে একজন লিখেছেন, ‘সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত এই গানটাই সবচেয়ে মনে ধরেছে। অনেক অনেক বড় হও বোন।’ সিফাত লিখেছেন, ‘এক কথায় বলতে গেলে, অসাধারণ! এর আগে কেউ কখনো এরকম শুনেনি এবং কল্পনাও করেনি! শুধু মনকে নয়, সমস্ত শরীরকে যেন ছুঁইয়ে গেল।’ এমন অসংখ্য প্রশংসাসূচক মন্তব্য ভরে আছে কমেন্ট বক্স।

মিতু বলেন, ‘এত বড় প্ল্যাটফর্মে লালন সাঁইজির গান করতে পেরেছি এটি আমার কাছে অনেক বড় পাওয়া। এ জন্য প্রথমেই কৃতজ্ঞতা জানাই অর্ণবদার প্রতি। তিনি না থাকলে এই সুযোগটি পেতাম না। পাশাপাশি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানাই আমার ওস্তাদ গোলাম রাব্বানী রতনের প্রতি। তিনি আমার পাশে ছায়ার মতো না থাকলে হয়তো এতদূর আসা সম্ভব হতো না।’

মিতু মনে করেন এ গানের মাধ্যমে পুনর্জন্ম হলো তার। তার ভাষায়—‘ছোট থেকেই গান নিয়ে থাকলেও কোক স্টুডিওর এই গানের মাধ্যমে আমার পুনর্জন্ম হলো। এই ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। পাশাপাশি গান দিয়ে মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিতে চাই। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন, আমি যেন আপনাদের ভালো কিছু গান উপহার দিতে পারি।’

কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সংগীত বিভাগ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন মিতু। একই বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন তিনি লোক বিভাগে মাস্টার্সে অধ্যয়নরত। সংগীতবিষয়ক রিয়েলিটি শো ‘মেঘে ঢাকা তারা’য় অংশ নেয়ার মধ্য দিয়ে মিতু তার গানের স্বপ্ন পূরণের প্রথম ধাপে পা রাখেন। ২০১১ সালে আয়োজিত এটিএন বাংলায় প্রচারিত এই আয়োজনে প্রথম স্থান অর্জন করেছিলেন তিনি।
উত্তরণবার্তা/এআর

 

  মন্তব্য করুন
     FACEBOOK