রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
ঢাকা সময়: ১৩:৫৭

স্থানীয় সরকারের আয় ও সক্ষমতা বাড়াতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

স্থানীয় সরকারের আয় ও সক্ষমতা বাড়াতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে  : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর আয় বাড়াতে ও তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। তিনি আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে তিন দিনব্যাপী জেলা প্রশাসক সম্মেলনের স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন। তাজুল ইসলাম বলেন, জেলা প্রশাসকরা তাদের মাঠ পর্যায়ের অভিযোগের কথা তুলে ধরেছেন, কিছু কিছু প্রশ্ন এসেছে। ইউনিয়ন পরিষদকে শক্তিশালী করতে কি কি ব্যবস্থাপনা হাতে নেয়া যায় সে সব বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের আয় বৃদ্ধির কোনো রূপরেখা ডিসিদের দিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা এটি নিয়ে আলোচনা করেছি। পরিষ্কার করে বলেছি স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের আয় বাড়াতে হবে, তাদের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। কথা এসেছে তাদের আরো লোকবল লাগবে। সেসব লোকবলের জন্য তাদের আয় বৃদ্ধি করতে হবে। সেজন্য কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, পৌরসভাকে শক্তিশালী করা এবং গ্রামীন অবকাঠামো উন্নয়নের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রামের কিছু কিছু সমস্যা আছে, সেখানে অবকাঠামো নির্মাণে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি ব্যয় হয়। রাষ্ট্রের সব জায়গা থেকে সমভাবে আয় বন্টনের ব্যবস্থা নেই। কিন্তু কিছু কিছু এলাকায় অতিরিক্ত আয় হয়, কোনো কোনো জায়গায় কম আয় হয়। সেখানে যাতে ভর্তুকি দেয়া যায় সে বিষয়ে কথা হয়েছে। এসব বিষয় নিষ্পত্তির জন্য বলা হয়েছে। তিনি বলেন, জনপ্রতিনিধি এবং সরকারি কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন পেশাজীবীরা সম্মিলিতভাবে দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করতে হবে। সেজন্য জেলা প্রশাসকদের আন্তরিকতাও পরিলক্ষিত হয়েছে।

ডিসিরা কোনো সমস্যার কথা বলেছেন কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, সব জায়গায় সমস্যা একই রকম হয়, সেটি বলা যাবে না। অনেক জায়গায় ইউএনও-চেয়ারম্যান ভালোভাবে কাজ করছেন। কোথাও কোথাও সমস্যা হয়। যেখানে যেখানে জটিলতা আছে সেখানে একসঙ্গে কাজ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ছিল, আমি নিজেও গুরুত্ব দিয়েছি। জনপ্রতিনিধি, সরকারী কর্মকর্তা, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষক সকলের প্রয়োজন আছে। কৃষক, রিকশাওয়ালাকেও উপেক্ষা করার সুযোগ নেই। অন্যকে মর্যাদা দিলে নিজের মর্যাদা পাওয়ায় কোনো সমস্যা হবে না। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে তৃতীয়বারের মত নির্বাচিত মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভির শপথের বিষয়ে জানতে চাইলে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, তার ( সেলিনা হায়াত আইভি) শপথ আইন অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে। নাসিক নির্বাচন ইভিএমে অনুষ্ঠিত হয়েছে। আমরা সব দেশের রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে বসেছিলাম। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আয়োজনে আমি ও আইনমন্ত্রী ছিলাম।

তিনি বলেন, সেখানে বাংলাদেশের নির্বাচন ব্যবস্থা নিয়ে বিভিন্ন কথা আসছে। শেষ পর্যন্ত আলোচনা সাপেক্ষে তারা সম্মত হয়েছে যে আমাদের প্রতি তাদের আস্থা ও বিশ্বাস বেড়েছে। নাসিক নির্বাচন আমাদের জন্য ভাল কাজ করেছে। এ বিষয়ে তিনি আরো বলেন, ‘ নাসিক নির্বাচন শতভাগ নিরপেক্ষ হয়েছে। ভাল নির্বাচন হয়েছে। সেটাকে ডিপ্লোমেটরা সকলেই স্বীকৃতি দিয়েছে। এটা আমাদের জন্য ভাল উদাহরণ। বাংলাদেশে স্থানীয় সরকার নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে হয় বলে প্রমাণিত হয়েছে।’ এ সময় অন্যান্যের মধ্যে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য ও স্থানীয় সরকারের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।
উত্তরণবার্তা/এআর

  মন্তব্য করুন
     FACEBOOK
আরও সংবাদ