সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
ঢাকা সময়: ২৩:৪১

দ্রুত খাবার খেলে ওজন বৃদ্ধি ও মেটাবলিক সিন্ড্রোমে ঝুঁকি বাড়ে

দ্রুত খাবার খেলে ওজন বৃদ্ধি ও মেটাবলিক সিন্ড্রোমে ঝুঁকি বাড়ে

সালাহউদ্দীন আহমেদ আজাদ
 
দ্রুত খাওয়া আপনার ওজন বৃদ্ধি ও মেটাবলিক সিন্ড্রোম হওয়ার ঝুঁকি বাড়ায়, বলছে একটি জাপানি গবেষণা। এটা হয় কারণ দ্রুত খাওয়ার ফলে আপনার ব্লাড সুগার ওঠানামা বাড়িয়ে ইন্সুলিন রেযিস্ট্যান্স ঘটায়। আমেরিকান হার্ট এসোসিয়াশনের সায়েন্টিফিক সেশনে উপস্থাপিত গবেষণাটিতে দেখা গেছে দ্রুত খাওয়া আপনার মেটাবলিক সিন্ড্রোম (Metabolic syndrome)-এর ঝুঁকি বাড়ায়। 
 
Metabolic syndrome হচ্ছে কয়েকটি রোগের সমন্বয় যা একজন মানুষের ডায়াবেটিস, হৃদরোগ এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ায়। যখন একজন মানুষের উচ্চ রক্তচাপ, উচ্চ ব্লাড সুগার, কোমরের মেদ বৃদ্ধি, উচ্চ ট্রাইগ্লিসারাইড এবং নিম্ন মাত্রার এইচ ডি এল কোলেস্টরল (ভাল কোলেস্টেরল)-এর ফলে উল্লেখিত ৩টি রোগ ঝুঁকির মধ্যে একটি দেখা দেয় তখন সেটাকে মেটাবলিক সিন্ড্রোম বলে।
 
গবেষণাটির পরিচালক ছিলেন ডক্টর তাকায়ুকি ইয়ামাজি – জাপানের হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ হেলথ (NIH) হুঁশিয়ারি উচ্চারণ ক’রে বলেছে যে ওজন বৃদ্ধির (স্থূলতা) হার বেড়ে যাওয়ার ফলে বহু মানুষ মেটাবলিক সিন্ড্রোমে আক্রান্ত হচ্ছে। 
 
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৩৪% মানুষ মেটাবলিক সিন্ড্রোমে ভুগছেন। NIH এর মতে ভবেষ্যত হৃদরোগের ঝুঁকির ক্ষেত্রে মেটাবলিক সিন্ড্রোম ধূমপানকেও ছাড়িয়ে যেতে পারে।
এই গবেষণায় ডক্টর ইয়ামাজি এবং তাঁর দল ১,০৮৩ অংশগ্রহণকারী (৬৪২ জন পুরুষ ও ৪৪১ জন মহিলা)-কে ৫ বছর ধরে অনুসরণ করেন। তাঁদের গড় বয়স ছিল ৫১ বছরের কিছু বেশী। গবেষকরা পর্যবেক্ষণ দেখতে চান অংশগ্রহনকারীদের খাওয়ার গতি এবং মেটাবলিক সিন্ড্রোমের মধ্যে কোন যোগসূত্র আছে কিনা।
 
২০০৮ সালে গবেষণার শুরুতে কোন অংশগ্রহনকারীর মেটাবলিক সিন্ড্রোম ছিল না। তাঁদেরকে ৫ বছর অনুসরণ করা হয়। অংশগ্রহনকারীরা তাঁদের খাদ্যাভ্যাস, ব্যায়াম, জীবনধারা এবং মেডিক্যাল ইতিহাসের উপর তথ্য প্রদান করেন। গবেষণার স্বার্থে কোন অংশগ্রহনকারীর যদি ২০ বছর বয়সের পর থেকে এ পর্যন্ত ১০ কিলো ওজন বেড়ে গিয়ে থাকে তাহ’লে সেটাকে ওজন বৃদ্ধি হিসেবে ধরা হয়।
 
অংশগ্রহনকারীদের খাদ্য গ্রহণের গতির উপর ভিত্তি করে তাঁদেরকে ৩টি ভাগে ভাগ করা হয়ঃ ধীরে খাদ্য গ্রহনকারী, স্বাভাবিক গতিতে খাদ্যগ্রহন এবং দ্রুত খাদ্যগ্রহন। অনুসরণের ৫ বছর সময়ে ৮৪ জন অংশগ্রহনকারীর মেটাবলিক সিন্ড্রোম দেখা দেয়। সব মিলিয়ে দ্রুত খাওয়া কে
দায়ী করা হয় বেশী ওজন বৃদ্ধি, অতি মাত্রায় ব্লাড সুগার, অতি মাত্রায় এল ডি এল কোলেস্টেরল (খারাপ কোলেস্টেরল) এবং স্থূলতার জন্য।
 
যাঁরা ধীর গতিতে খাদ্য খান তাঁদের তুলনায় দ্রুত গতিতে খাদ্য গ্রহনকারীদের মেটাবলিক সিন্ড্রোম হওয়ার ঝুঁকি দ্বিগুণ। আরো পরিষ্কারভাবে বললে বলতে হয় যে দ্রুত খাদ্য গ্রহনকারীদের মেটাবলিক সিন্ড্রোমের ঝুঁকি ছিল ১১.৬% এবং স্বাভাবিক গতিতে খাদ্যগ্রহনকারীদের ছিল ৬.৫%। একই সাথে ধীর গতিতে খাদ্য গ্রহনকারীদের মেটাবলিক সিন্ড্রোমের আশংকা ছিল ২.৩%।
 
গবেষকরা জাপানী নাগরিকদের হুঁশিয়ারি করে বলেন যেহেতু দ্রুত খাওয়ার ফলে স্থূলতা এবং মেটাবলিক সিন্ড্রোম হ’তে পারে তাই সবার উচিৎ ধীর গতিতে খাদ্য গ্রহন করা।
“যখন একজন মানুষ দ্রুত গতিতে খায় তখন তার পেট ভরা ভাব হ’তে সময় লাগে তাই সে বেশী খেয়ে ফেলে। দ্রুত খেলে ব্লাড সুগার লেভেল অতিমাত্রায় ওঠানামা করে যার ফলে সৃষ্টি হয় ইন্সুলিন রেযিস্ট্যান্স। আমি মনে করে আমাদের এই গবেষণা মার্কিনিদের উপর বেশী প্রযোজ্য,” বলেন ডক্টর ইয়ামাজি।
 
খাবার কখনই দ্রুত খাওয়া উচিৎ নয়। খাবার খেতে হবে ধীরে এবং ভালমত চিবিয়ে। খাবার ভালমত চিবিয়ে না খেলেও দেখা দিতে পারে অনেক স্বাস্থ্য সমস্যা। আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশনের উপদেশ মতে হৃদরোগ থেকে বাঁচতে চাইলে স্বাস্থ্যকর খাবার এবং স্বাস্থ্যকর
জীবনধারা অনুসরণ করা উচিৎ।
 
লেখক: খাদ্য, স্বাস্থ্য ও পুষ্টিবিষয়ক গবেষক

  মন্তব্য করুন
     FACEBOOK