বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ২ আষাঢ় ১৪২৮
ঢাকা সময়: ১৫:৫৯

রাশিয়ার চাপে ইউক্রেনকে জার্সি বদলাতে বলছে উয়েফা

উত্তরণবার্তা ক্রীড়া ডেস্ক : টুর্নামেন্ট শুরু হতে আর এক দিন বাকি। এখন কিনা জার্সি নিয়ে ভাবতে হবে ইউক্রেনকে! ২০২০ ইউরোর জন্য যে জার্সি জানিয়েছিল দলটি, সে জার্সিকে টুর্নামেন্টের জন্য উপযুক্ত মনে করছে না ইউরোপিয়ান ফুটবল ফেডারেশন (উয়েফা)। তাই ইউক্রেনকে জার্সি বদলাতে বলে দিয়েছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা। জার্সি থেকে রাজনৈতিক স্লোগান সরাতে বলা হয়েছে তাদের। ইউক্রেনের জার্সিতে একটি স্লোগান লেখা আছে, ‘গ্লোরি টু আওয়ার হিরোজ’। আপাতদৃষ্টে খুবই সাধারণ একটি স্লোগান। কিন্তু এর ইতিহাস একে রাজনৈতিক পরিচয় এনে দিচ্ছে। ২০১৪ সালে ইউক্রেনে রাশিয়াবিরোধী প্রতিবাদে এই স্লোগান ব্যবহৃত হতো। উয়েফার ধারণা, জার্সির এই বার্তা পরিষ্কারভাবেই ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপূর্ণ’।
 
ইউরোর জন্য ইউক্রেনের নতুন জার্সি দেখেই রাশিয়ায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল। গত মঙ্গলবার এই হলুদ জার্সির ব্যাপারে উয়েফার কাছে অভিযোগ করেছে রাশিয়া। ইউক্রেনের জার্সিতে দেশটির মানচিত্রও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সে মানচিত্রে ইউক্রেনের অংশ হিসেবে ক্রিমিয়াকেও দেখানো হয়েছে। ২০১৪ সালে এই অঞ্চলটা দখল করে নেয় রাশিয়া। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির জেলেনস্কি এ জার্সি সদর্বে সবার সামনে পরেছেন। উয়েফার কাছে রাশিয়ার অভিযোগের খবর শোনার পরও নিজেদের জার্সির পক্ষে কথা বলেছেন জেলেনস্কি। ইনস্টাগ্রামে জার্সিসহ নিজের ছবি দিয়ে বার্তা দিয়েছিলেন, ইউক্রেনীয় মানুষকে একত্র করার গুরুত্বপূর্ণ সব চিহ্ন বহন করছে এ জার্সি। অন্যদের মতো নয় ইউক্রেনের ফুটবল দলের জার্সি। প্রেসিডেন্টের প্রেস অফিস থেকে জার্সি পরা জেলেনস্কির ছবিও প্রকাশ করা হয়েছে।
 
রাশিয়ার আপত্তি দুটি বিষয় নিয়ে থাকলেও উয়েফা বলছে, ইউক্রেনের মানচিত্র না বদলালেও চলবে। কারণ, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের কাছে নাকি মানচিত্রের ওই নকশা স্বীকৃত। আর ‘গ্লোরি টু ইউক্রেন’ স্লোগানটিও উয়েফা প্রথমে স্বীকৃতি দিয়েছিল। কারণ, এমনিতে এই স্লোগান খুব সাধারণ শোনায় এবং এতে রাজনৈতিক কিছু নেই। সাত বছর আগে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ভিক্তর ইয়ানুকোভিচকে পদত্যাগে বাধ্য করার সময় আন্দোলনকারীরা এই স্লোগান ব্যবহার করেছেন। আগামী রোববার নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে এবারের ইউরো শুরু হবে ইউক্রেনের। সি গ্রুপে এই দুই দল ছাড়াও আছে অস্ট্রিয়া ও উত্তর মেসেডোনিয়া।
উত্তরণবার্তা/সাব্বির

  মন্তব্য করুন
     FACEBOOK