স্নায়ুযুদ্ধে ড্যানিশ নয়; ক্রোয়েট রূপকথা

  জুলাই ০২, ২০১৮     ১৮     ১০:০৮ পূর্বাহ্ন     ম্যাচ রিপোর্ট
--

আরিফ সোহেল
নিজনি নভগোরড স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরুর ১ মিনিটের মধ্যেই ডেনমার্কের গোল৷ হয়ে গেল ড্যানিশ রূপকথা৷ কিন্তু ৪ মিনিটের মাথায় পরিশোধ ক্রোয়েশিয়ার৷ চলতি বিশ্বকাপের দ্রুততম জোড়া গোলে ঘটনাবহুল ম্যাচের ইঙ্গিত মিললেও নির্ধারিত ৯০ মিনিটে পুনরায় প্রতিপক্ষের শেষ রক্ষণ ভেদ করতে ব্যর্থ দু’দলই৷ অগত্যা ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে৷ সেখানে ড্যানিশদের সরিয়ে হয়ে গেল ক্রোয়েট রূপকথা৷ যেখানে নায়ক  ক্রোয়েশিয়া কিপার সুবাসিচ৷

এক্সট্রা টাইমের প্রথম ১৫ মিনিটেও ম্যাচের স্কোরলাইনে বদল হয়নি৷ তবে অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয়ার্ধে ১-১ সমতায় দাঁড়িয়ে থাকা ম্যাচ নিজেদের অনুকূলে টেনে নেওয়ার সহজ সুযোগ পেয়েছিল ক্রোয়েশিয়া৷ পেনাল্টি আদায় করেও ক্রোয়েশিয়া গোল করতে না পারায় স্পট কিকে নির্ধারিত হয় ম্যাচের ভাগ্য৷ চূড়ান্ত উত্তেজক পেনাল্টি শুট-আউটে ডেনমার্ককে ৩-২ গোলে পরাজিত করে শেষ আটের টিকিট নিশ্চিত করে মদ্রিচ-ব়্যাকিটিচরা৷

শুরুর প্রথম মিনিটেই ডেলানেইয়ের পাস থেকে গোল করেন জোরগেনসেন৷ যদিও ক্লোজ রেঞ্জার শট ক্রোয়েশিয়া গোলরক্ষক সুবাসিচের হালে লেগে তার পর গোলে ঢোকে৷ তবে এক্ষেত্রে ক্রোয়েশিয়া কিপারকে দোষ দেওয়া যায় না৷ ৪ মিনিটের মাথায় গোল করে ক্রোয়েশিয়াকে ১-১ গোলের সমতায় ফেরান মান্দুকিচ৷ প্রথমার্ধের খেলা শেষ হয় ১-১ গোলেই৷ দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণ-প্রতিআক্রমণে খেলায় দু’দলই বেশ কয়েকটা সংঘবদ্ধ আক্রমণে ওঠে৷ তবে প্রতিপক্ষের গোলমুখ খুলতে পারেনি কেউই৷ অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয়ার্ধে মদ্রিচের পেনাল্টি আটকে দেন ডেনমার্ক গোলরক্ষক ক্যাসপার৷ না হলে এক্সট্রা টাইমেই ম্যাচের নিস্পত্তি হয়ে যেত৷ তা না হওয়ায় পেনাল্টি শুট-আউটে গড়ায় ক্রোয়েশিয়া-ডেনমার্ক বিশ্বকাপের প্রি-কোয়ার্টার ফাইনাল৷

স্পট কিকে ক্যাসপার দু’টি পেনাল্টি কিক সেভ করেন৷ তিনি আটকে দেন বাদেল ও পিভারিচকে৷ তবে ক্রোয়েশিয়া কিপার সুবাসিচ কার্যত দেওয়াল গড়ে তোলেন গোল পোস্টের সামনে তিনি আটকে দেন এরিকসেন, লাসে সোন ও জোরগেনসেনের শট৷ ডেনমার্কের হয়ে গোল করেন সাইমন ও মাইকেল ক্রোন-ডেহলি৷ ক্রোয়েশিয়ার হয়ে ডেনমার্কের জালে বল জড়ান ক্রামারিচ, লুকা মদ্রিচ ও ইভান ব়্যাকিটিচ৷

গোটা ম্যাচে তিনটি করে পেনাল্টি সেভ করেন দুই গোলকিপারই৷ তবে শুট-আউটে মহীরুহ হয়ে ওঠেন ক্রোয়েশিয়া গোলরক্ষক সুবাসিচ৷ ম্যাচ হারলেও ম্যাচের নায়ক নির্বাচিত হন ড্যানিশ গোলকিপার ক্যাসপার৷ তাঁর জন্যই ম্যাচ গড়ায় শুট-আউট পর্যন্ত৷ অতিরিক্ত সময়ে মদ্রিচের পেনাল্টি সেভ করাটাই শেষ পর্যন্ত লড়াইয়ে রেখেছিল ডেনমার্ককে৷

আগামী ৭ জুলাই সোচিতে কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে আয়োজক রাশিয়ার মুখোমুখি হবে ক্রোয়েশিয়া৷ অপর প্রি-কোয়ার্টারে রাশিয়া পেনাল্টি শুট-আউটে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে দিয়েছে ২০১০ এর চ্যাম্পিয়ন স্পেনকে৷

বিশ্বকাপের আসল রঙ বুঝি এটাই। এক দল আনন্দে উল্লাসে মাতবে অন্য দল চোখের জলে বিদায় নিবে। বিশ্বকাপ ইতিহাসের অন্যতম নাটকীয় টাইব্রেকারের সাক্ষী হলো রাশিয়ার নভগরদ স্টেডিয়াম। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ সমতায় থাকলে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকে। সেখানেও চলে নাটক।

দুই দলের ফুটবলারই তাদের প্রথম শট থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন। পরবর্তী দুটি শটে ঠিকই গোল করে ২-২ সমতায় থাকে। চতুর্থ শটে গিয়ে আবার পেনাল্টি মিস করে বসে দু দলের ফুটবলার। কিন্তু শেষ শটে এসে আর সতীর্থদের ভুলের পুনরাবৃত্তি করেননি ইভান রাকিতিচ। পঞ্চম শট ডেনমার্কের ইয়ার্গেনসেন মিস করলেও ঠিকই গোল করে ক্রোয়েশিয়াকে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে তোলেন রাকিতিচি।

আলোচিত তারকাদের অভাবে রঙ হারানো বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডের চতুর্থ ম্যাচে তুমুল উত্তেজনা দেখল সবাই। ইউরোপের শক্তিশালী দল ক্রোয়েশিয়াকে বেশ ভালোভাবেই রুখে দেল আরেক ইউরোপিয়ান দেশ ডেনমার্ক। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ সমতায় থেকে শেষ করে দু’দল। ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। সেখানেও কোন দল গোল না করতে পারলে টাইব্রেকারেই ডেনমার্ককে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে পা রাখে ক্রোয়েশিয়া। গ্রুপ পর্বে তিন ম্যাচের তিনটিতে জিতে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে আসে ক্রোয়েটরা। অন্যদিকে, গ্রুপে অপরাজিত থাকলেও মাত্র একটি ম্যাচেই জয়ের হাসি হাসতে পেরেছিল ডেনমার্ক।
উত্তরণবার্তা/আসো



ম্যাচ পয়েন্ট

সেমিফাইনাল

১০ জুলাই, ২০১৮ মঙ্গলবার

ফ্রান্স–বেলজিয়াম, রাত ১২.০০টা, সেন্ট পিটার্সবার্গ

১১ জুলাই, ২০১৮ বুধবার

ইংল্যান্ড–ক্রোয়েশিয়া, রাত ১২.০০টা, মস্কো

তৃতীয় স্থান নির্ধারণী

১৪ জুলাই, ২০১৮ শনিবার

সেমিফাইনালের পরাজিত দুই দল, রাত ৮.০০টা, সেন্ট পিটার্সবার্গ

ফাইনাল

১৫ জুলাই, ২০১৮

রোববার দুই সেমিফাইনাল জয়ী, রাত ৯.০০টায়, মস্কো

* সকল খেলার সময় বাংলাদেশের সময় অনুযায়ী

পুরনো খবর