যুক্তরাজ্যে মেডিকেল চেকআপ শেষে দেশে ফিরেছেন রাষ্ট্রপতি     তার মুখে দুর্নীতি নিয়ে কথা মানায় না : ওবায়দুল কাদের     নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে সক্ষম : প্রধানমন্ত্রী     ফ্রান্সে আনন্দ-উৎসব চলছেই     উচ্চতর ডিগ্রির আসা জাগালো কারিগরির ৮৯ হাজার শিক্ষার্থী     এইচএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন যেভাবে     দৃষ্টিশক্তি বাড়ায় মিষ্টি কুমড়া     বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ ও তার ব্যবহার    

কলা ব্যবহারে চুল হয়ে উঠে ঝলমলে আর উজ্জ্বল

  মে ১৫, ২০১৮     ৩০৮     ১২:১৬ অপরাহ্ণ     বিনোদন
--

লাইফস্টাইল ডেস্ক : বিশ্বজুড়ে সহজলভ্য একটি ফল হলো কলা। সারা বছরই পাওয়া যায় এই ফলটি। জানেন কি, চুলের সুস্বাস্থ্যের জন্যও কলা খুবই উপকারী। শুধুমাত্র কলা বা কলার সঙ্গে অন্য কোনও উপাদানের মিশ্রণ চুলের খুশকি দূর করে। পাশাপাশি চুলের রুক্ষতা ও চুল ঝরা নিয়ন্ত্রণেও কলা অত্যন্ত কার্যকর।

কলায় থাকে প্রচুর পরিমাণ কার্বোহাইড্রেট, পটাশিয়াম, প্রাকৃতিক তেল ও ভিটামিন, যা চুলকে মসৃণ ও ঝলমলে করে তোলে। এবার জেনে নেয়া যাক চুলের সুস্বাস্থ্যের জন্য কলার নানান ব্যবহার।

কলা, পাতিলেবু ও টক দই

চুলের খুশকি দূর করতে অর্ধেক পাকা কলার সঙ্গে তিন চামচ টক দই ও এক চামচ পাতিলেবুর রস মিশিয়ে চটকে নিন। মিশ্রণটি শুধুমাত্র চুলের গোড়া ও মাথার তালুর ত্বকে ভালো করে লাগান।

খেয়াল রাখতে হবে, এই মিশ্রণটি যাতে কোনোভাবেই মাথার বাকি চুলে না লাগে। ২০-২৫ মিনিট পর চুল শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। পাতিলেবু আর টক দই চুলকে খুশকিমুক্ত করতে সাহায্য করে। এই মসৃণ করতে কলার ব্যবহার আসলে কন্ডিশনারের কাজ করে।

কলা, ডিম ও লেবুর রস

চুলের বৃদ্ধি এবং নতুন চুল গজানোর ক্ষেত্রে এই মিশ্রণ খুবই কার্যকর। সপ্তাহে অন্তত দুদিন এই মিশ্রণটি ব্যবহার করা যেতে পারে। দুটি চটকে নেয়া কলা, একটি ডিমের শুধু কুসুমের অংশটুকু ও এক চামচ লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে এই মিশ্রণটি তৈরি করে নিন।

মিশ্রণটি ভালো করে মাথার ত্বকে ও চুলে মাখিয়ে একটি প্লাস্টিক বা ফয়েল জাতীয় কিছু দিয়ে মাথা মুড়ে ফেলুন। এর ওপরে একটি তোয়ালে বা কাপড় জড়িয়ে নিন। এভাবে এক ঘণ্টা রাখার পর ভালো করে জল দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

কলা ও নারকেলের দুধ

পাকা কলার সঙ্গে নারকেল দুধ ভালো করে মেখে এই মিশ্রণটি তৈরি করুন। সময় নিয়ে ভালো করে চুলে এই মিশ্রণটি মাখিয়ে ২০-২৫ মিনিটের জন্য লাগিয়ে রাখুন। এই মিশ্রণটির ব্যবহারে রুক্ষ চুলে ময়েশ্চারাইজার ফিরে আসে এবং চুলকে মোলায়েম, ফরফুরে করে তোলে। এই মিশ্রণের সঙ্গে কফির গুঁড়ো মিশিয়ে নিতে পারেন। এতে চুলের মধ্যে একটা প্রাকৃতিক বাদামি (ব্রাউন) রং আসবে।

কলা ও মধুর মিশ্রণ

চুল যাদের রুক্ষ হয়ে গেছে, তারা কলা এবং মধুর মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন। এর ব্যবহারে চুলের হারানো উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে আর সেই সঙ্গে চুল হয়ে উঠবে মোলায়েম।

দুটি পাকা কলা এবং দুই চামচ মধু একসঙ্গে মিশিয়ে ভালো করে চটকে নিন। এবার এই মিশ্রণটি চুলে ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। শাওয়ার ক্যাপ বা ওই জাতীয় কিছু দিয়ে মাথা ঘণ্টাখানেক ঢেকে রাখার পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে চুল ধুয়ে শ্যাম্পু করে ফেলুন। সপ্তাহে মোটামুটি দুবার এই মিশ্রণ ব্যবহার করলেই চুল হয়ে উঠবে ঝলমলে আর উজ্জ্বল।

কলা আর অলিভ অয়েল

চুলে অতিরিক্ত রং বা কেমিক্যাল ব্যবহারের ফলে যাদের চুল ভঙ্গুর হয়ে গেছে বা চুল ঝরার পরিমাণ বেড়ে গেছে তাদের জন্য এই মিশ্রণটি অত্যন্ত কার্যকর। এই মিশ্রণ ব্যবহারে চুলের গোড়া মজবুত হয়। একই সঙ্গে চুল হয়ে উঠবে মোলায়েম, ফরফুরে। একটি পাকা কলা এবং দুই চামচ অলিভ অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে ভালো করে চটকে নিন।

এরপর এই মিশ্রণটি চুলে ভালোভাবে মাখিয়ে শাওয়ার ক্যাপ বা ওই জাতীয় কিছু দিয়ে মাথা মিনিট কুড়ি ঢেকে রাখুন। এরপর ঠাণ্ডা জল দিয়ে চুল ভালো করে ধুয়ে শ্যাম্পু করে ফেলুন। তবে এ ক্ষেত্রে অলিভ অয়েলের বদলে নারকেল তেলও ব্যবহার করা যেতে পারে।

তাহলে, শরীরের সঙ্গে সঙ্গে চুলের সুস্বাস্থ্যের জন্য কলার নানা ব্যবহার আমরা জানলাম। এবার চুলের স্বাস্থ্যের পাশাপাশি তার সৌন্দর্য বাড়িয়ে নিন একেবারে ঘরোয়া উপায়ে, সামান্য খরচে।

সূত্র : নিউজ

উত্তরণবার্তা/এআর



রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবলের সূচি

  জুন ০৬, ২০১৮     ৩৯৭২

আমের কেজি ৭ টাকা

  জুন ২৭, ২০১৮     ১৪৭৬

পুরনো খবর