আজ - রবিবার, ২০ মে ২০১৮, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ | ঢাকা সময়: ১০:০২ অপরাহ্ন
বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলেও গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে : সেতুমন্ত্রী     ২ জুন থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট     আগামী নির্বাচনে বড় বিজয়ে আত্মবিশ্বাসী আওয়ামী লীগ     বঙ্গোপসাগরে ৬৫ দিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ     স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করে নজির স্থাপন করেছে বাংলাদেশ: স্পিকার     বরিশালে ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত     আন্তর্জাতিক একক ব্যবহার নিশ্চিত করা গেলে বাণিজ্য সহজীকরণের কাজ ত্বরান্বিত হবে : শেখ হাসিনা     একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে স্বাবলম্বী হচ্ছে গ্রামের হতদরিদ্র লাখো পরিবার    

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট, ফ্যালকনের শেষ ডিজাইনের প্রথম অভিযান

  মে ১৪, ২০১৮     ৪৫     ১:১৬ অপরাহ্ণ     শিক্ষা
--

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার মহাকাশ কেন্দ্র থেকে গত ১২ মে বাংলাদেশ সময় ভোররাত ২টা ১৪ মিনিটে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট নিয়ে যাত্রা ছিল রকেট উৎক্ষেপণ প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্সের নতুন ডিজাইন ‘ফ্যালকন ৯ ব্লক ৫’ এর প্রথম অভিযান। ফ্যালকন মডেলের রকেটের এটি শেষ ডিজাইন। এরপর ফ্যালকনের আর কোনো নতুন সংস্করণ আসবে না বলে স্পেসএক্স জানিয়েছে।

উৎক্ষেপণের দেড় মিনিট পর ফ্যালকন-৯ ব্লক ৫ ম্যাক্স কিউ অতিক্রম করে। নির্দিষ্ট উচ্চতায় পৌঁছে রকেটের স্টেজ-১ খুলে যাওয়ার পর স্টেজ-২ কাজ শুরু করে। এরপর পুনরায় ব্যবহারযোগ্য স্টেজ-১ সফলভাবে পৃথিবীতে ফিরে আসে এবং আটলান্টিকে ভাসমান ড্রোন শিপে অবতরণ করে।

স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের প্রায় ৩৩ মিনিটের মাথায় বঙ্গবন্ধু-১ পৌঁছে যায় জিওস্টেশনারি ট্রান্সফার অরবিটে। রকেট থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে মহাশূন্যে গা ভাসায় বাংলাদেশের প্রথম যোগাযোগ স্যাটেলাইট।

পৃথিবীতে ফিরে আসার মাধ্যমে ফ্যালকন ৯ ব্লক ৫ রকেটটি তার প্রথম অভিযান সফলভাবে সম্পন্ন করল। তবে অনেকের মনেই প্রশ্ন, রকেটটি মোট কতটি অভিযান করতে পারবে, নাকি এটিই প্রথম ও শেষ অভিযান?

স্পেসএক্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রধান ডিজাইনার এলন রিভি মাস্ক জানিয়েছেন, ফ্যালকন ৯ ব্লক ৫ এর গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ (কোর) পুনরায় তৈরির মাধ্যমে ৩০-৪০টি রকেট আগামী পাঁচ বছরে কমপক্ষে ৩০০টি অভিযানে অংশ নিতে পারবে। অর্থাৎ একেকটি রকেট (কোর) একাধিকবার ব্যবহার করা হবে।

পাঁচ বছর পর ফ্যালকন ৯ ব্লক ৫ এর সবশেষ অভিযানের পর কী হবে? এলন মাস্ক জানান, এরপর এর জায়গা নেবে বিএফআর, যার মাধ্যমে চাঁদ, মঙ্গল ও ‘অবশেষে অন্যান্য গ্রহে’ অভিযান চালানো হবে।

মাস্ক বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট নিয়ে ফ্যালকন ৯ ব্লক ৫ এর পদচারণা কেবল শুরু। বাস্তবতা হলো এর রূপান্তর অচিরেই জনসম্মুখে আসবে।

অনেকের কাছেই প্রশ্ন, ফ্যালকন ৯ ব্লক ৫ এর প্রতি উৎক্ষেপণে খরচ কেমন পড়বে? বর্তমানে একটি পুনরায় ব্যবহার্য ফ্যালকন ৯ রকেটে খরচ হয় ৫০ মিলিয়ন ডলার। যদি ৩০-৪০টি রকেট দিয়ে ৩০০ অভিযান চালানো হয় তাকে এ খরচ নাটকীয়ভাবে কমে আসবে।

উল্লেখ্য, স্পেসএক্স হলো আমেরিকার একটি বেসরকারি মহাশূন্যযান প্রস্তুতকারক ও উৎক্ষেপণকারী প্রতিষ্ঠান। মহাশূনযান উৎক্ষেপণে ব্যয় কমিয়ে আনার লক্ষ্য নিয়ে ২০০২ সালে এলন মাস্ক এটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

উত্তরণবার্তা/এআর



 



মিথ্যে বললেই ধরে ফেলবে মোবাইল!

  এপ্রিল ২১, ২০১৮     ১০৪৩

পুরাতুন খবর