মঙ্গোলিয়ায় বন্যায় ৪৮ জনের প্রাণহানি     তৃতীয় মৎস্য উৎপাদক দেশ হিসেবে এফএও’র স্বীকৃতি পেল বাংলাদেশ     একুশ আগস্ট মামলায় ৪৩ আসামীর পক্ষে যুক্তিতর্ক পেশ     তিন সিটিতে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে ইসির ব্যাপক প্রস্তুতি     বৈশ্বিক বাণিজ্য সম্প্রসারণে সুবিধা বাড়াতে হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী     লোহার তৈরি জাহাজ পানিতে ভাসে কেন?     পলিথিন ছেড়ে ‘সোনালী ব্যাগ’ ব্যবহারের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর     এইচএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ বৃহস্পতিবার    

তরুণ ভোটাররা আওয়ামী লীগের বিজয়ের অন্যতম প্রধান হাতিয়ার : সেতুমন্ত্রী

  মে ১২, ২০১৮     ৮৮     ১:০২ অপরাহ্ণ     রাজনীতি
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক :  আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আগামী নির্বাচনে ফার্স্ট টাইম তরুণ ভোটাররা হবে আওয়ামী লীগের বিজয়ের অন্যতম প্রধান হাতিয়ার। সেই ফার্স্ট টাইম ভোটারদের সংগঠিত করার কাজ পড়বে ছাত্রলীগের ওপর। এই দায়িত্ব তোমাদের পালন করতে হবে।’
 
শুক্রবার বিকালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ছাত্রলীগের ২৯তম জাতীয় সম্মলনে তিনি এসব কথা বলেন।
 
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শেখ হাসিনার কল্যাণে আজ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ মহাকাশে যাত্রা করতে যাচ্ছে। তাঁর নেতৃত্বে আমরা গর্বিত। তিনি আজ সারা বিশ্বের সেরা রাষ্ট্রনায়ক, সেরা প্রধানমন্ত্রীর তালিকায় সেরাদের একজন শেখ হাসিনা। তিনি আমাদের গর্ব, তিনিই আমাদের সম্পদ।’ ‘বঙ্গবন্ধু আমাদের দেশ দিয়েছেন আর শেখ হাসিনা দিয়েছেন উন্নয়নশীল বাংলাদেশ। তাঁর সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল।’
 
ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ সভাপতির বক্তৃতায় বলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য কাজ করে গেছি। সাধারণ শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক আন্দোলনে ছাত্রলীগ পাশে ছিল। মাদক ও জঙ্গিবাদমুক্ত বাংলাদেশ গঠন করার জন্য কাজ করেছি। পাশাপাশি ছাত্রলীগের কর্মীদের সচেতন করার জন্য চেষ্টা করেছি। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে সোহাগ বলেন, রাজনীতি শেখার পাঠশালা হচ্ছে ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের তিনটি কাজ করতে হবে- বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী, কারাগারের রোজনামচা ও প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করা। এই তিনটি কাজ করলে আপনারা পরাজিত হবেন না।
 
ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসেন নিজের দায়িত্ব নিয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, আমরা দায়িত্ব হাতে নেওয়ার পর শোকের মাস আসে। আমরা সেই শোক দিবস সঠিকভাবে পালন করি। আমরা ৯ মাসের মধ্যে ১০৯টি শাখার কমিটি গঠন করি। আমরা প্রতিটি বিভাগ, জেলা, উপজেলায় কমিটি গঠন করেছি। নতুন করে ৭০২টি পৌরসভার কমিটি দেই।
 
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাদের দায়িত্ব দেয়ার পর আমরা কাজ করতে চেয়েছি। জানি না আমরা কতটুকু সফল হয়েছি। আমরা ছাত্রলীগকে গ্রামগঞ্জে পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করেছি। আমরা যে কাজ করেছি তার সব কর্তৃত্ব আপনাদের (ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের)।
 
উত্তরণবার্তা/এআর



 



পুরনো খবর