রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে শক্ত অবস্থানে যাবে বাংলাদেশ     ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে অবদান রাখায় এলজিআরডি মন্ত্রীকে সম্মাননা     কিছু এনজিও রোহিঙ্গাদের ফিরে না যেতে উস্কানি দিচ্ছে : তথ্যমন্ত্রী     বঙ্গবন্ধু অ্যাভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় হলে নতুন দিগন্তের সূচনা হবে     বঙ্গবন্ধু হত্যারহস্য উন্মোচনে কমিশন গঠনের দাবি     জন্মাষ্টমী ঘিরে রাজধানীতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা     শুভ জন্মাষ্টমী আজ     রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদে আলোচনা আজ    

৯ নম্বর স্প্যান দৃশ্যমান পদ্মা সেতুতে

  মার্চ ২২, ২০১৯     ১১৮     ৪:৪০ অপরাহ্ণ     জাতীয় সংবাদ
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : পদ্মা সেতুর আরেকটি স্প্যান বসানো হলো। পদ্মা সেতুর আরেকটি স্প্যান বসানো হলো। পদ্মা সেতুর ৩৫ ও ৩৪ নম্বর পিলারের ওপর আজ শুক্রবার আরেকটি স্প্যান বসানো হয়েছে। এ নিয়ে পদ্মা নদীতে নির্মাণাধীন সেতুর মোট ৯টি স্প্যান বসানো হলো। সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটের দিকে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে স্প্যানটি বসানো হয়। এ নিয়ে পদ্মা সেতুর মোট ১ হাজার ৩৫০ মিটার দৃশ্যমান হলো। ২৭ অথবা ২৮ মার্চ মাওয়া প্রান্তে ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারের ওপর আরও একটি স্প্যান বসানো হবে। এই দুটি নিয়ে মোট ১০টি স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হবে। বৃহস্পতিবারই পদ্মা সেতুর ওপর এই স্প্যানটি বসানোর কথা ছিল। কারিগরি কিছু জটিলতার কারণে স্প্যানটি আজ বসানো হলো। প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, মূল পদ্মা সেতুর ৭২ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।
 
পদ্মা সেতু প্রকল্পটির যাত্রা শুরু হয় ২০০৭ সালে। সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকার ওই বছরের ২৮ আগস্ট ১০ হাজার ১৬১ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন করে। পরে আওয়ামী লীগ সরকার এসে রেলপথ সংযুক্ত করে ২০১১ সালের ১১ জানুয়ারি প্রথম দফায় সেতুর ব্যয় সংশোধন করে। প্রকল্পের বর্তমান ব্যয় ৩০ হাজার কোটি টাকার বেশি। মূল সেতু নির্মাণের দায়িত্বে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন কোম্পানি। আর নদী শাসনের কাজ করছে চীনের আরেক প্রতিষ্ঠান সিনোহাইড্রো করপোরেশন। দুই প্রান্তে টোল প্লাজা, সংযোগ সড়ক, অবকাঠামো নির্মাণ করছে দেশীয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।
 
গত ২০ ফেব্রুয়ারি জাজিরা প্রান্তে ৩৬ ও ৩৫ নম্বর পিলারের ওপর পদ্মা সেতুর অষ্টম স্প্যান বসানো হয়।এ নিয়ে ৯টি স্প্যান পদ্মা সেতুর ওপর বসানো হলো। এ নিয়ে ৯টি স্প্যান পদ্মা সেতুর ওপর বসানো হলো। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু। ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি ৩৮ ও ৩৯ নম্বর পিলারে বসানো হয় দ্বিতীয় স্প্যান। গত বছরের ১১ মার্চ ৩৯ ও ৪০ নম্বর পিলারের ওপর বসে তৃতীয় স্প্যান। ১৩ মে ৪০ ও ৪১ নম্বর পিলারের ওপর চতুর্থ স্প্যান বসানো হয়। ২৯ জুন সেতুর পঞ্চম স্প্যান বসানো হয় শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার নাওডোবা এলাকায়। এ বছরের ২৩ জানুয়ারি জাজিরা প্রান্তের তীরের দিকের ষষ্ঠ স্প্যান বসে। আর গত বছরের শেষ দিকে মাওয়া প্রান্তে ৪ ও ৫ নম্বর স্তম্ভের ওপর একমাত্র স্প্যানটি বসানো হয়।
 
ক্রেনবাহী জাহাজের নোঙর জটিলতায় বৃহস্পতিবার পদ্মা সেতুর নবম স্প্যানটি বসানোর কথা থাকলেও তা সম্ভব হয়নি। পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সকাল ৭টায় এটি ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিলারে বসানোর কাজ শুরু করতে গিয়ে নোঙর জটিলতা ধরা পড়ে। প্রকল্প সূত্র জানায়, মাওয়ায় বুধবার ঝড়ের কারণে বিশাল জাহাজ ‘তিয়ান ই’র এ্যাংকরের একটি তাড় ছিড়ে যায়। পরে আবার জাহাজটি নোঙর করার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়। তবে নানা কারণে নতুন করে নোঙরে সময় বেশী লেগে যায়। তাই নির্ধারিত সময় পরিবর্তন করে শুক্রবার সকালে নবম স্প্যানটি বসানো হয়।

বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মাওয়া কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে রওয়ানা দিয়ে ১২ টার দিকে জাজিরায় পৌঁছায় নবম স্প্যান (সুপার স্ট্রাকচার) ‘৬ ডি’। তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের স্প্যানটি তিন হাজার ৬ শ’ টন ধারণ ক্ষমতার ভাসমান ক্রেন ‘তিয়ান ই’ ৩৫ নম্বর পিলারের কাছে নোঙর করে। সেতু প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, সেতুর মোট পিলার ৪২টি, এর মধ্যে ২১ টির কাজ পুরোপুরি সম্পন্ন হয়েছে। ৪১টি স্প্যানের মধ্যে ইতোমধ্যেই বসানো হয়েছে জাজিরা প্রান্তে ৮টি এবং মাওয়া প্রান্তে একটি স্প্যান। যদিও মাওয়া প্রান্তের স্প্যানটি বসানো রয়েছে ৪ ও ৫ নম্বর পিলারের ওপর। এটি পরবর্তীতে সরিয়ে নেয়া হবে ৬ ও ৭ নম্বর পিলারের ওপর।

মোট ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল কাঠামো হবে দ্বিতল। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো। জাজিরা প্রান্তে সেতুর ৩৪, ৩৫, ৩৬, ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪০, ৪১ ও ৪২ পিলারে সাতটি স্প্যান বসানো হয়েছে।
উত্তরণবার্তা/আসো

 



ভিসা করতে যা যা জেনে রাখা জরুরি

  আগস্ট ২২, ২০১৯     ২০৭৬

ভিসা ছাড়াই বিদেশভ্রমণ

  আগস্ট ২২, ২০১৯     ১৪৭৯

নার্স খুনের কারণ জানালেন সহকর্মী

  আগস্ট ২১, ২০১৯     ১৪০৫

কোরবানির মাংসের অন্যরকম হাট!

  আগস্ট ১৩, ২০১৯     ১৩৫৪

পুরনো খবর