আজ - রবিবার, ২০ মে ২০১৮, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ | ঢাকা সময়: ১০:০০ অপরাহ্ন
বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলেও গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে : সেতুমন্ত্রী     ২ জুন থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট     আগামী নির্বাচনে বড় বিজয়ে আত্মবিশ্বাসী আওয়ামী লীগ     বঙ্গোপসাগরে ৬৫ দিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ     স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করে নজির স্থাপন করেছে বাংলাদেশ: স্পিকার     বরিশালে ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত     আন্তর্জাতিক একক ব্যবহার নিশ্চিত করা গেলে বাণিজ্য সহজীকরণের কাজ ত্বরান্বিত হবে : শেখ হাসিনা     একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে স্বাবলম্বী হচ্ছে গ্রামের হতদরিদ্র লাখো পরিবার    

গাজীপুর সিটি নির্বাচন নিয়ে আপিলে শুনানি চলছে

  মে ১০, ২০১৮     ২৭     ১০:৪৫ পূর্বাহ্ন     আইন-আদালত
--

নিজস্ব প্রতিবেদক :  গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে হাইকোর্টের দেয়া স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের দুই মেয়রপ্রার্থীর আবেদন এবং নির্বাচন কমিশনের আপিলের শুনানি চলছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে চার বিচারপতির বেঞ্চে এ শুনানি শুরু হয়।

গাসিক নির্বাচন স্থগিত নিয়ে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থীর পর নির্বাচন কমিশনও (ইসি) আবেদন করেছে।

আদালতে ইসির পক্ষে রয়েছেন মো. ওবায়দুর রহমান (মোস্তফা)। হাসান উদ্দিন সরকারের পক্ষে জয়নুল আবেদীন, জাহাঙ্গীরের পক্ষে এএম আমিন উদ্দিন এবং রিটকারী সুরুজের পক্ষে রয়েছেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ।

এর আগে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার এবং আওয়ামী লীগের জাহাঙ্গীর আলম হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে যে আবেদন করেছেন, সোমবার তা শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়েছিলেন চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

সে অনুযায়ী, আবেদন দুটি বুধবার আপিল বিভাগে উঠলে নির্বাচন কমিশনের আইনজীবী মো. ওবায়েদ রহমান মুস্তফা আদালতকে জানান, তারাও হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল ফাইল করেন।

প্রধান বিচারপতি তখন তাকে বলেন, বাকি দুপক্ষ আগেই আবেদন করেছে, আপনারা কোথায় ছিলেন?

জবাবে ওবায়েদ মুস্তফা বলেন, গতকাল ওকালতনামা পেয়েছি, ফাইল করেছি।

প্রধান বিচারপতি তখন শুনানি বুধবার হবে না (নট টুডে) বলে জানালে হাসান উদ্দিন সরকারের আইনজীবী মাহবুব উদ্দিন খোকন আদালতকে বলেন, ১৫ তারিখ নির্বাচন, শুনানি এখনই করা দরকার।

বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন তখন বলেন, ১৫ তারিখ নির্বাচন, আগামীকাল শুনানি হলে কিছু হবে না।

নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী, ১৫ মে গাজীপুরে ভোট করতে সব প্রস্তুতি এগিয়ে নেয়া হচ্ছিল। সে অনুযায়ী প্রার্থীরাও প্রচারে ব্যস্ত ছিলেন। জমেও উঠেছিল প্রচার।

কিন্তু সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছয়টি মৌজা গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবিএম আজহারুল ইসলাম সুরুজ একটি রিট আবেদন করলে হাইকোর্ট গত রোববার এ সিটির নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করে দেন।

সেই সঙ্গে শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ছয়টি মৌজা গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করে জারি করা গেজেট এবং সম্প্রতি গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তফসিল কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত।

উত্তরণবার্তা/এআর



মিথ্যে বললেই ধরে ফেলবে মোবাইল!

  এপ্রিল ২১, ২০১৮     ১০৪৩

পুরাতুন খবর