কাল দিন-রাত সমান, আকাশে থাকবে সুপারমুন     উন্নয়ন প্রকল্পে তদারকি বাড়াতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা     আজ সাবেক রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী     ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি চলছে     টেকসই উন্নয়নে যথাযথ ভূমিকা রাখতে প্রকৌশলীদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির     ১ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকার সংশোধিত এডিপি অনুমোদন     ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি বুধবার     ডাকসুর প্রথম কার্যকরী সভা ২৩ মার্চ    

দুই মেরুতে তাসকিন ও আল-আমিন

  জানুয়ারী ১০, ২০১৯     ১০৬     ১১:৪৯ পূর্বাহ্ন     ক্রীড়া
--

উত্তরণবার্তা ক্রীড়া ডেস্ক : সিলেট সিক্সার্সের স্থানীয় পেসারদের মধ্যে বড় ভরসা তাসকিন আহমেদ ও আল-আমিন হোসেন। চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে কাল ২৮ রানে চার উইকেট নিয়ে এবারের বিপিএলে সিলেটের প্রথম জয়ে বড় অবদান রেখেছেন তাসকিন। ঠিক উল্টো অভিজ্ঞতা হয়েছে আল-আমিনের। বিপিএলে এক ম্যাচে সবচেয়ে বেশি রান দেয়ার অনাকাক্সিক্ষত রেকর্ড গড়ে দলকে বিপদে ফেলে দিয়েছিলেন আল-আমিন।

১৬৯ রানের লক্ষ্যে শেষ ওভারে জয়ের জন্য চিটাগংয়ের প্রয়োজন ছিল ২৪ রান। আল-আমিন দেন ১৮। সিলেট জেতে পাঁচ রানে। ঘরোয়া ক্রিকেটের অভিজ্ঞ পেসার আল-আমিন চার ওভারে দিয়েছেন ৫৭ রান। পাননি কোনো উইকেট। এটাই বিপিএলের সবচেয়ে বাজে বোলিংয়ের রেকর্ড।

এর আগের রেকর্ডটি ছিল যৌথভাবে দিলশান মুনাবিরা ও কামরুল ইসলাম রাব্বির। তারা দু’জনেই চার ওভারে দিয়েছিলেন ৫৪ করে রান। বিপিএলে মুনাবিরার তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছিল সিলেটের হয়েই। প্রতিপক্ষ ছিল এই চিটাগং ভাইকিংসই। ম্যাচটি হয়েছিল ২০১৫ সালে। গত আসরে এই সিলেট সিক্সার্সের পেসার কামরুল হাসান খরুচে বোলার হিসেবে মুনাবিরাকে স্পর্শ করে ফেলেন।

আল-আমিনের এমন খরুচে বোলিংয়ের পরও দল জেতায় দারুণ খুশি সিলেটের অল-রাউন্ডার আফিফ হোসেন, ‘পাওয়ার প্লেতে আমরা ভালো অবস্থানে ছিলাম না। সেখান থেকে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছি। এই জয় আমাদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে।’

শুরুতে দ্রুত তিন উইকেট হারালেও ডেভিড ওয়ার্নারকে সঙ্গে নিয়ে সিলেটকে ঘুরে দাঁড়াতে সাহায্য করেছেন আফিফ। আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ২৮ বলে পাঁচ চার ও তিন ছক্কায় করেন ৪৫ রান। আফিফ বলেন, ‘সেভাবে আমি ওয়ার্নারের কাছ থেকে কোনো পরামর্শ নেইনি। তবে এত বড় একজন ব্যাটসম্যানের সঙ্গে ব্যাটিং করতে পারায় ভালো লাগছিল। তার সঙ্গে ব্যাটিং করছি এটা ভেবে আত্মবিশ্বাস পেয়েছি।’

প্রথম ম্যাচ হারের পর দলের মধ্যে কী ধরনের আলোচনা হয়েছে? আফিফ বলেন, ‘শুধু ওয়ার্নারই না, পুরো টিম ম্যানেজমেন্ট একটি জিনিস বোঝাতে চেয়েছে যে প্রথম ম্যাচে কম রান করেও লড়াই করেছি। ওই জিনিসটা আমাদের অনেক সাহায্য করেছে।’

উত্তরণবার্তা/এআর



সন্তানই আমার সবকিছু হবে

  মার্চ ১৯, ২০১৯     ১২৯

মজাদার কিমা পরোটা

  মার্চ ১২, ২০১৯     ১১৪

পুরনো খবর