আয়কর মেলা শুরু আজ     এয়ার শো দেখতে দুবাই যাবেন প্রধানমন্ত্রী     রোহিঙ্গা সমস্যার জন্য দায়ী জিয়াউর রহমান : প্রধানমন্ত্রী     খেলাপি ঋণ অবশ্যই আদায় করা হবে: অর্থমন্ত্রী     ঢাকা গ্লোবাল ডায়লগ’র সমাপনীতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী     ইসরাইলের বিমান হামলা, কমপক্ষে ২৩ ফিলিস্তিনি নিহত     ৫ দিনব্যাপী রাস উৎসব     কর দেয়ার ব্যাপারে জনগণের মধ্যে ভীতি রয়েছে : মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী    

সারাদিন প্রার্থনা-অর্চনা-উপোস করে আওয়ামী লীগের বিজয় কামনা

  ডিসেম্বর ২৬, ২০১৮     ৪৬৩     ৬:২২ অপরাহ্ণ     নির্বাচন
--

রাজিয়া সুলতানা : ৩০ ডিসেম্বর যখন সারাদেশে জাতীয় নির্বাচনে ভোট-ভোটারদের ডামাডোল চলবে, তখন বলিবাবলা-নগরবাড়ী-ঢেপুলিয়ার গ্রামবাসীর একটি অংশ উপোস-প্রার্থনা-অর্চনায় দিন কাটাবেন। তাদের এই উপোস বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজয় কামনা করে। পাশাপাশি সারাদেশের শান্তি অব্যাহত থাকার জন্যও এখানে প্রার্থনা করা হয়। উদ্যোক্তারা মনে করেন আওয়ামী লীগ দেশ পরিচালনায় থাকলে সারাদেশের অগ্রগতি-উন্নয়ন এবং শান্তি বিরাজমান থাকে। তাই এবারও তারা আওয়ামী লীগের বিজয়ের জন্য ভোটের সারাদিন প্রার্থনায় কাটাবেন।
 
জাতীয় নির্বাচন রাজনৈতিক-সামাজিক সংগঠনের নানা উদ্যোগ-আয়োজনে জমজমাট হয়ে ওঠে। পোস্টার-ফেস্টুন-মাইকিং-লিফলেটের পাশাপিশ পোশাক গেঞ্জি-মাফলারে দলীয় প্রতীক আঁকার ঘটনাও নতুন নয়। তবে নির্বাচনকে ঘিরে পিরোজপুরের শ্রীরামকাঠীর বলিবাবলা গ্রামের এই উদ্যোগ ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। সনাতন ধর্মাবলম্বী বাসিন্দারা সারাদিন মহান সৃষ্টিকর্তার উদ্দেশ্যে প্রার্থনা করেন। উপোস থেকে বৈদিক মতে পূজা-অর্চনার মাধ্যমে আরাধনা ব্রত পালন করেন। তাদের বিশ্বাস দেশ শান্তিতে থাকলে দেশের মানুষও শান্তিতে থাকবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু হাতে গড়া, যার সুযোগ্য নেতৃত্বে রয়েছেন জননেত্রী শেখ হাসিনাÑ সেই আওয়ামী লীগের প্রতি গভীর ভালোবাসা সমর্থন জানাতেই এই দিনভর পূজা-অর্চনা।
 
বলিবালা গ্রামের বাসিন্দারা এই উদ্যোগ শুরু করেছিলেন ১৯৯৬ সালে জতীয় নির্বাচন ঘিরে। সেই থেকেই চলছে এই ব্যতিক্রমধর্মী ব্রত-অর্চনা। সব কটি জাতীয় নির্বাচনেই এই ব্রত-অর্চনা পালন করেছেন তারা। আয়োজনের অন্যতম প্রধান উদ্যোক্তা পুতুল রানী হাওলাদার জানিয়েছেন, ‘বলিবাবলা গ্রামের ১২জন নারীর অংশগ্রহণের মাধ্যমে এই ব্রতপালন অনুষ্ঠানের সূচনা হয়েছিল। এবার এই অর্চনায় পাশের ৪টি গ্রামের কমপক্ষে ৫০জন নারী অংশ নিবেন। এ বছর আমাদের সহযোগী হিসেবে গ্রামের পুরুষরাও অংশ নিতে পারেন।’
 
কোনো রাজনৈতিক বা সামাজিক সংগঠনের ব্যানারে নয়, পুতুল রানী হাওলাদারের মতো অংশ নেওয়া নারীরা তাদের প্রিয় দল-প্রার্থী এবং দেশের শান্তি কামনার জন্যই এই প্রার্থনার আয়োজন করে। তিনি আরও জানিয়েছেনÑ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি সম্মান দেখাতে, তার দলের বিজয় কামনা করারই আমাদের আরোধ্য লক্ষ্য। আমরা তো সরাসরি কোন সভায় অংশ গ্রহণ করতে পারি না। তাই এই প্রার্থনা ব্রতকেই বেছে নিয়েছি।’ তিনি আরও বলেছেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী টানা ১০ বছর আমাদের আগলে রেখেছেন। সেই দলের মঙ্গল এবং বিজয় কামনা করে একদিন আমরা উপোস করি।’ 
 
এবার পিরোজপুরÑ১ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিমের বিজয় কামনা করে প্রার্থনা করবেন এই উদ্যোক্তারা। এই প্রার্থনা সভার অন্যতম উদ্যোক্তা হিসেবে বলিবাবলা থেকে কুসুম হালদার, শোভা ডাকুয়া, রেখা হাওলাদার, মনিকা মিস্ত্রী; নগরবাড়ি থেকে উর্মীলা ম-ল, অঞ্জলি শিকদার এবং ঢেপুলিয়া থেকে মাধুরী অধীকারী, গীতিকা অধিকারী এবং কাকালী হালদার সম্পৃক্ত রয়েছেন। আর তাদের সহযোগিতা করতে এগিয়ে এসেছেন সবুজ হাওলাদারের মতো অনেকেই।
উত্তরণবার্তা/আসো
 



আয়কর মেলা শুরু আজ

  নভেম্বর ১৪, ২০১৯

পুরনো খবর