মিশর-তুরস্ক থেকে ৫০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ আসছে : প্রধানমন্ত্রী     প্রতি উপজেলায় ১০ চিকিৎসক নিয়োগ : ফরহাদ হোসেন     প্রধানমন্ত্রীর দুবাই সফরে ৩ চুক্তি স্বাক্ষরের সম্ভাবনা : মোমেন     উল্লাপাড়ায় ট্রেন লাইনচ্যুত, ৪ বগিতে অগ্নিকাণ্ড     জঙ্গিদের কাছে কোরআন-হাদিসের দাওয়াত পৌঁছে দিতে হবে : গৃহায়ণমন্ত্রী     আয়কর মেলায় রিটার্ন দাখিল করেছেন প্রধানমন্ত্রী     বিএনপি একটি ব্যর্থ রাজনৈতিক দল : সেতুমন্ত্রী     গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সংবাদ প্রকাশে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের    

সেরেনাকে রয়কটের সিদ্ধান্ত অফিসিয়ালদের

  সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮     ৩৯৮     ৭:০৭ অপরাহ্ণ     ক্রীড়া
--

উত্তরণবার্তা ক্রীড়া ডেস্ক : পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল হচ্ছে। বিরোধ নিস্পত্তি তো দূরের কথা বাড়ছে আরও জটিলতা। এই জটিলতা টেনিস সম্রাজ্ঞি সেরেনা উইলিয়ামসকে ঘিরে। প্রতিপক্ষ এই মুহূর্তে বিশ্ব টেনিসে অন্যতম অভিজ্ঞ আম্পায়ার হিসেবে সুবিদিত কার্লোস রামোস। সদ্য সমাপ্ত যুক্তরাষ্ট্র ওপেনের ফাইনালে তাঁর সিদ্ধান্তে রুষ্ট হয়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন টেনিস মায়েস্ত্রো সেরেনা উইলিয়ামস। ফাইনালে কিছু সিদ্ধান্ত তাঁর বিরুদ্ধে যাওয়ায় রামোসকে ‘মিথ্যুক’ এবং ‘চোর’ বলতেও পিছপা হননি সেরেনা। এমনকি ম্যাচ চলাকালীন লিঙ্গবৈষম্যের মত গুরুতর অভিযোগ তুলে রামসকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন মার্কিনি টেনিস তারকা। এতেই বেজায় ক্ষুব্ধ ম্যাচ অফিসিয়ালদের একটি গোষ্ঠী। যুক্তরাষ্ট্র ওপেনে সেরেনার ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ মোটেই ভাল চোখে নেননি তারা। তাই যতদিন না সেরেনা তাঁর কৃতকর্মের জন্য দুঃখপ্রকাশ করছেন, ততদিন সেরেনার কোন ম্যাচে হটসিটে বসবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা।

গত শনিবার আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে যুক্তরাষ্ট্র ওপেনের ফাইনালে জাপানি খেলোয়ার নাওমি ওসাকা’র মুখোমুখি হয়েছিলেন সেরেনা। ৬ বারের যুক্তরাষ্ট্র ওপেন চ্যাম্পিয়ন সেরেনাকে সেই ম্যাচে স্ট্রেট সেটে উড়িয়ে প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের স্বাদ নেন ওসাকা। কিন্তু ম্যাচ চলাকালীন কোর্টে নিজের সেরাটা দিতে না পারার কারণে সেরেনার কিছু অভিব্যক্তি এবং র‍্যাকেট ভেঙে ফেলার মত ঘটনা গেমের প্রোটোকলের বিরুদ্ধে যায়। যা ভালভাবে নেননি ম্যাচ আম্পায়ার কার্লোস রামোস। ফলে দ্বিতীয় সেটে সেরেনার বিপক্ষে তিন তিনবার কোড ভায়োলেন্স সহ একটি গেম পেনাল্টির নির্দেশ দেন বছর সাতচল্লিশের ওই আম্পায়ার। আর তাতেই বেজায় ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ‘সুপার মম’ সেরেনা। লিঙ্গবৈষম্যের অভিযোগ তুলে হটসিটে বসে থাকা রামোসকে তির্যক মন্তব্য ছুঁড়ে দেন ২৩টি গ্র্যান্ডস্লামের মালকিন।

এই ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র টেনিস অ্যাসসিয়েশন সেরেনাকে ১৭ হাজার ইউ এস ডলার জরিমানা করে। কিন্তু কয়েকটি ক্ষেত্রে সেরেনাকে সমর্থন করেছে যুক্তরাষ্ট্র টেনিস অ্যাসসিয়েশন এবং মহিলা টেনিস আসসিয়েশন। তবে অনভিপ্রেত এই ঘটনায় টেনিস অফিসিয়াল মহলের চক্ষুশূল হয়ে ওঠেন মার্কিনি টেনিস তারকা। তাই সেরেনার ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ শুধু জরিমানাতেই থেমে থাকেনি। ম্যাচ অফিসিয়ালদের মতে, ‘গেমের সমস্ত নিয়মাবলী এবং শর্তানুযায়ী রামোস নিজের কাজটি করে গিয়েছেন। আর তাতেই সেরেনার ক্ষোভের কারণ হয়ে উঠেছেন তিনি।’ আম্পায়ারদের ব্যক্তিগত স্বার্থে এই ঘটনা মোটেই প্রত্যাশিত নয়। তাই এই ঘটনার জন্য অবিলম্বে সেরেনাকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছে ওই অফিসিয়াল গোষ্ঠীর তরফ থেকে। নইলে ভবিষ্যতে সেরেনার কোন ম্যাচে আম্পায়ারের হটসিটে বসবেন না তারা।

অন্যদিকে এই ঘটনা দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য নড়েচড়ে বসেছে আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন। রামোসের সমর্থনে পাশে দাঁড়িয়েছেন তারা। অন্যদিকে যেহেতু সেরেনাকে কয়েকটি ক্ষেত্রে সমর্থন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র টেনিস অ্যাসসিয়েশন এবং মহিলা টেনিস আসসিয়েশন, তাই এই দুই সংস্থার সঙ্গে সামঞ্জস্য বজায় রাখতে নীতিগত বিষয়গুলি পুনর্বিবেচনার কথা ভাবছে তারা।
উত্তরণবার্তা/আসো



তিন দশক পর

  নভেম্বর ১৪, ২০১৯

পুরনো খবর