বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স     নতুন করদাতা সন্ধানে সেকেন্ডারি ডাটার ব্যবহার বেড়েছে     রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে মিয়ানমারের উপর আরো বেশী আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টির আহ্বান ঢাকার     সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টায় দেশ আজ দানাদার খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ : মতিয়া চৌধুরী     টি-২০ বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করায় নারী ক্রিকেট দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন     এসএসএফের দায়িত্বশীলতার প্রশংসা প্রধানমন্ত্রীর     হজ যাত্রীদের জন্য ডিএমপি’র ফ্রি বাস সার্ভিস     ক্রোয়েশিয়ার বহু স্বপ্নের সামনে ফ্রান্স    

ধর্ষণের শিকার নারীর টু ফিঙ্গার পরীক্ষা নিষিদ্ধ

  এপ্রিল ১২, ২০১৮     ১১২          আইন-আদালত
--

ধর্ষণের শিকার নারীর মেডিকেল পরীক্ষায় ‘টু ফিঙ্গার’ (‘দুই আঙ্গুলের’ মাধ্যমে পরীক্ষা) পদ্ধতি নিষিদ্ধ ঘোষণা করে আজ রায় দিয়েছে হাইকোর্ট।
বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি এ কে এম সাহিদুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ এ রায় দেয়।
রায়ে বর্তমানে ধর্ষণের পরীক্ষার জন্য সরকারের করা হেলথ কেয়ার প্রটোকলে বর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ করতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে পরীক্ষার সময় ভিকটিমের আত্মীয়, নারী চিকিৎসক, নারী পুলিশ, নারী নার্স রাখতে বলা হয়েছে। এছাড়া ধর্ষণ মামলার বিচারকালে আইনজীবী কখনও ভিকটিমকে অমর্যাদাকর প্রশ্ন করতে পারবেন না বলেও উল্লেখ করেছে আদালত।
আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার সারা হোসেন।
রিটের পক্ষে আইনজীবীরা জানায়, সনাতন পদ্ধতিতে (দুই আঙ্গুলের মাধ্যমে পরীক্ষা) ধর্ষণের পরীক্ষা করার কারণে অনেক ভিকটিম পরীক্ষা করতে আসেন না। আর এ কারণে অনেকে ধর্ষিত হয়েও বিচার পান না। ভারতে এ পদ্ধতি বাতিল করা হয়েছে।
বিষয়টি নিয়ে ২০১৩ সালের ৮ অক্টোবর মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব¬াস্ট), আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক), বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, ব্র্যাক, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন, নারীপক্ষ এবং ডা. রুচিরা তাবাচ্ছুম ও ডা. মোবারক হোসেন খান রিট আবেদনটি দায়ের করেন। ওই রিটের ওপর জারি করা রুলের ওপর চূড়ান্ত শুনানি শেষে আদালত আজ রায় ঘোষণা করে।



ফাইনাল দেখতে সৌরভ

  জুলাই ১৫, ২০১৮

পুরনো খবর