শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা     রাজাকারকে শহীদ বলা জঘন্য আস্ফালন     শহীদ বুদ্ধিজীবীদের তালিকা প্রকাশ করা হবে     মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে জনতার ঢল     বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা     শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ     ফোর্বসের প্রভাবশালী ১০০ নারীর তালিকায় শেখ হাসিনা     লিটন দাসের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে রাজশাহীর সহজ জয়    

নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে খাগড়াছড়িতে পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২২তম বর্ষ পালিত

  ডিসেম্বর ০২, ২০১৯     ২৫     ১৯:০১     জাতীয় সংবাদ
--

উত্তরণ ডেস্কঃ জেলায় ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও আনন্দ উৎসবমুখর পরিবেশে নানা কর্মসূচি মধ্য দিয়ে পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২২ তম বর্ষপূর্তি পালিত হয়েছে।
আজ সোমবার সকাল ৯ টায় দিবসটিকে ঘিরে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ ও সেনাবাহিনীর খাগড়াছড়ি রিজিয়ন সদর দপ্তর শহরে বের করে বর্ণাঢ্য এক আনন্দ র‌্যালী ।
পার্বত্য জেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে পায়রা উড়িয়ে বর্ণাঢ্য এ র‌্যালীর উদ্বোধন করেন উপজাতীয় শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।
এ সময় সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা, খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. ফয়জুর রহমান, খাগড়াছড়ি ডিজিএফআই ডেট কমান্ডার কর্নেল মো. নাজিম উদ্দিন, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার এমএম সালাহ উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
র‌্যালিতে হাজার-হাজার পাহাড়ী বাঙ্গালী নারী পুরুষ অংশগ্রহণ করে। বর্ণাঢ্য এ র‌্যালিটি শহরের প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে খাগড়াছড়ি টাউন হল প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়।
পরে জেলা পরিষদ সদস্য খগেশ্বর ত্রিপুরার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপজাতীয় শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন। আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ এর ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা টিটন খীসা। দিবসটি উপলক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতি ভিন্ন ভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। পার্বত্য জেলা পরিষদ চুক্তি বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি পূর্ণ পরিবেশ সৃষ্টি ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার অঙ্গিকার করেছে।
কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতার কারনেই আজ পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তির সুবাতাস বইছে। বর্তমান সরকার চুক্তির বেশির ভাগ শর্তই বাস্তবায়ন করেছে এবং বাকি গুলো ধাপে-ধাপে বাস্তবায়িত হবে।
এদিকে খাগড়াছড়িতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ২২ বর্ষপূর্তি উদযাপন করেছে সংস্কার পন্থি পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতির (এমএন লারমা) নেতৃবৃন্দরা।
সোমবার সকালে খাগড়াছড়ি জেলা শহরের লারমা স্কয়ার থেকে বিশাল একটি র‌্যালি শহরের প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে মারমা উন্নয়ন সংসদ হল রুমে এসে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।
আলোচনা সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রচার সম্পাদক সুধাকর ত্রিপুরার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি বিমল কান্তি চাকমা।
এছাড়াও ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২২ বছর পূর্তি উপলক্ষে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ ও খাগড়াছড়ি রিজিয়ন সদর দপ্তরের, আতশবাজি প্রদর্শন ও বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ।
১৯৯৭ ইং সনের ২ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগ সরকার পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতির সমিতির সঙ্গে ঐতিহাসিক পার্বত্য চুক্তি স্বাক্ষকের মাধ্যমে দীর্ঘ দু’দশকেরও বেশী সময় ধরে বিরাজমান রক্তক্ষয়ী সংঘাতের অবসান ঘটাতে সক্ষম হয়।

আইস/উত্তরণ



রাজাকারকে শহীদ বলা জঘন্য আস্ফালন

  ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯     ১৮

জরিপে উঠে আসছে গণহত্যার নতুন চিত্র

  ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯     ১৩

পুরনো খবর