করোনা: রেকর্ড শনাক্তের দিনে ২৩ জনের মৃত্যু     চীন-ভারত সীমান্ত দ্বন্দ্ব নিয়ে যা বললেন ট্রাস্প     আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্তদের সমবেদনা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে প্রিন্স চার্লসের চিঠি     প্রথমবারের মতো শান্তিরক্ষীদের বহন করল বাংলাদেশ বিমান     যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু বেড়ে ১ লাখ ৩ হাজার, আক্রান্ত সাড়ে ১৭ লাখ     ১০ জুন বাজেট অধিবেশন শুরু: থাকছে নানা বিধিনিষেধ     সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধে নির্বাহী আদেশে ট্রাম্পের সই     করোনার কারণে ঢাকা ছেড়েছেন দেড় হাজার ভারতীয়    

সোহরাওয়ার্দীতে উৎসবের অপেক্ষা

  নভেম্বর ০৪, ২০১৯     ৫৮     ১৪:১৪     রাজনীতি
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : কৃষকের কাঁচারি ঘরে বসে আছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। কাঁচারি ঘরের সামনে কৃষক তার উৎপাদিত পণ‌্য নিয়ে বসে আছেন। আর শেখ হাসিনা কাঁচারি ঘরে বসে দেখছেন কৃষক তার উৎপাদিত পণ‌্যের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন কি না।

আগামী ৬ নভেম্বর কৃষক লীগের সম্মেলনকে সামনে রেখে এই ধরনের আবহে মঞ্চ তৈরি করা হচ্ছে। মঞ্চ তৈরির কাজও প্রায় শেষের দিকে। ‘আমার বাড়ি আমার খামার’ এই স্লোগানকে ধারণ করে সম্মেলনের কার্যক্রম শুরু হবে।    

রোববার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গিয়ে দেখা গেছে, সেখানে বিশাল কর্মযজ্ঞ চলছে। সব কাজ প্রায় শেষের দিকে। সংগঠনের দায়িত্বশীলদের ঘুম নেই। সবাই যে যার দায়িত্ব নিয়ে ব্যস্ত। রাত-দিন চলছে কাজ। সাত বছর পর কৃষক লীগের এই সম্মেলন ঘিরে এরই মধ্যে নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসবের আমেজ চলছে।

কৃষক লীগের সম্মেলনের সমন্বয়ক ও সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সমীর চন্দ্র জানান, দুইজন কৃষক, দুইজন কৃষাণী মডেল হিসেবে থাকবেন কৃষি পণ‌্য নিয়ে। সামনে কৃষকের উৎপাদিত সব পণ্য থাকবে। আর মডেলরা এগুলো বিক্রির মুডে থাকবেন। প্রধানমন্ত্রী কাঁচারি ঘরে বসে কৃষক তার উৎপাদিত পণ‌্যের সঠিক মুল্য পাচ্ছেন কি না-তা তদারকি করছেন। আর দর্শকরা থাকবেন ক্রেতা। অর্থাৎ নেত্রী প্রবেশ করলেন কৃষকের কাঁচারি ঘরে।

কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা বলেন, ‘সম্মেলনে সারা বাংলাদেশ থেকে প্রায় ছয় হাজার কাউন্সিলর আসবেন। এছাড়া অনেক ডেলিগেট আসবেন।’

দেশে কৃষির উন্নয়ন এবং কৃষকের স্বার্থ রক্ষার জন্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ১৯ এপ্রিল বাংলাদেশ কৃষক লীগ প্রতিষ্ঠা করেন। সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সম্মেলন হয় সর্বশেষ ২০১২ সালের ১৯ জুলাই। তিন বছর কমিটির মেয়াদ থাকলেও চলেছে প্রায় আট বছর।

শুধু কেন্দ্রীয় কমিটি নয়, জেলা পর্যায়ের কমিটিগুলোও বিভিন্ন কারণে ঝিমিয়ে পড়েছে। এই পরিস্থিতিকে সামনে রেখে আগামী ৬ নভেম্বর কৃষক লীগের সম্মেলন হবে।

উত্তরণবার্তা/এআর



পুরনো খবর