রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারকে চাপ দিতে জার্মানিকে অনুরোধ     সম্মেলন মানেই নতুন মুখ : ওবায়দুল কাদের     মিয়ানমারকে রোহিঙ্গাদের মানবাধিকার রক্ষার নিশ্চয়তা দিতে হবে     শীতের সবজি বাজারে, দাম ভাল পাওয়ায় চাষির মুখে হাসি     বিশ্বকাপে আমাদের আবারও প্রমাণ করতে হবে : সাকিব     তেরো বছরের কিশোরের ঘাড়ে জাপানের মসনদ     বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের ‘কঠিন চীবর’ দান উৎসব আজ     জহুর হকার মার্কেটে ভয়াবহ আগুন    

সিরিয়ার ‘পেটে ঢুকে’ হামলা তুরস্কের

  অক্টোবর ১১, ২০১৯     ১২৩     ১০:৪৬     বিদেশ
--

উত্তরণবার্তা আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সিরিয়ার একেবারে ‘পেটে ঢুকে’ সামরিক অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক। সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের ইউফ্রেটিস নদীর পূর্বে ৩০ কিলোমিটার (১৯ মাইল) ভেতরে ঢুকে কুর্দি ওয়াইপিজি গেরিলাদের বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালিয়েছে তুর্কি সেনাবাহিনী।

‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ নামের এ অভিযানের দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার কুর্দি অধ্যুষিত পাঁচটি গ্রামে বিমান হামলা চালানো হয়েছে। টানা দু’দিনের হামলায় ১০৯ কুর্দি মিলিশিয়া ও ৮ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। কুর্দিদের বিরুদ্ধে তুরস্কের এ অভিযানে যুক্তরাষ্ট্র ‘সবুজ সংকেত’ দেয়নি বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।

মধ্যপ্রাচ্যে বেজে ওঠা এ যুদ্ধের দামামা নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে আঞ্চলিক ও বিশ্বসংস্থা। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার জরুরি বৈঠকে বসার কথা রয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের। শনিবার জরুরি বৈঠকে বসছে আরব লীগও। খবর রয়টার্স ও এএফপির।

বুধবার থেকে সিরিয়ায় অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক। দেশটির সরকারি সংবাদ সংস্থা আনাদোলু এক প্রতিবেদনে বলছে, বৃহস্পতিবার ভোরে ইউফ্রেটিস নদীর ৩০ কিলোমিটার পূর্বাঞ্চলে ঢুকে পড়ে তুর্কি বাহিনী। তুরস্কের যুদ্ধবিমান এফ-১৬ থেকে সিরিয়ার আইন ইসা জেলার পাঁচটি গ্রামে হামলা চালানো হয়েছে। এসব গ্রামে কুর্দিদের অস্ত্রাগার রয়েছে।

পাশাপাশি রাস আল-আইন, দেরিক ও কামাসলি জেলাতেও অভিযান শুরু করেছে তুর্কি বাহিনী। কুর্দি অধ্যুষিত কামিশলি শহরে আইএস জঙ্গিদের আটকে রাখা একটি কারাগারে হামলা চালিয়েছে তুরস্কের সেনাবাহিনী।

কুর্দি প্রশাসন বলছে, ওই জেলে প্রায় ৬০ দেশের কুখ্যাত আইএস জঙ্গিদের আটকে রাখা হয়েছে। এদিন আঙ্কারায় দলীয় সমাবেশে এরদোগান দাবি করেন, তুর্কি বাহিনীর হামলায় ১০৯ কুর্দি সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে।

অভিযানের প্রথম দিন বুধবার বিমান হামলা চালানোর পাশাপাশি তাদের সেনাবাহিনী ও তুর্কি সমর্থিত সিরীয় বিদ্রোহীরা তেল আবায়াদ ও রাস আল-আইনের ৪টি পয়েন্ট দিয়ে সীমান্ত অতিক্রম করে। এদিন তুরস্কের বিমান ও কামান কুর্দিদের ১৮১টি স্থাপনায় আঘাত হেনেছে বলে জানিয়েছে আঙ্কারা।

তুরস্কের এ অভিযানে যুক্তরাষ্ট্র অনুমোদন দেয়নি বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বুধবার সম্প্রচার মাধ্যম পিবিএসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে পম্পেও সিরীয় সীমান্ত নিয়ে আঙ্কারার নিরাপত্তা উদ্বেগকে ‘ন্যায্য’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন।

পম্পেও বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কুর্দি অধ্যুষিত এলাকার মার্কিন সেনাদের বিপদের বাইরে রাখতেই তাদের সেখান থেকে সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। কুর্দি নেতৃত্বাধীন এসডিএফ আইএসবিরোধী লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র ছিল। কিন্তু তুরস্ক কুর্দিদের তাদের দেশে নিষিদ্ধ বিচ্ছিন্নতাবাদী কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির (পিকেকে) সহযোগী মনে করে।

এদিকে তুরস্কের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে একটি প্রস্তাবনা আনার পরিকল্পনা করছেন দুই রিপাবলিকান সিনেটর। তারা হলেন লিন্ডসে গ্রাহাম ও ক্রিস ভ্যান হোলেন। তারা বলেন, সিরিয়া না ছাড়লে যুক্তরাষ্ট্রে থাকা তুর্কি নেতা সব সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা উচিত।

তুরস্কের এ অভিযানে পশ্চিমা দেশগুলো উদ্বেগ জানিয়েছে। পাঁচ ইউরোপীয় দেশ যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম ও পোল্যান্ডের অনুরোধে বৃহস্পতিবার এ অভিযান নিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আলোচনাও হবে। মিসরের অনুরোধে শনিবার কায়রোতে জরুরি বৈঠক ডেকেছে আরব লীগও।

ট্রাম্প সিরিয়ায় তুর্কি অভিযানকে ‘বাজে পরিকল্পনা’ অ্যাখ্যা দিলেও ওই এলাকা থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে নিজের সিদ্ধান্তের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন। তিনি বলেন, তুর্কি ও কুর্দিরা শতকের পর শতক ধরে লড়াই করছে।

কুর্দি যোদ্ধারা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে আমাদের সহায়তা করেনি, ডি-ডের দিনে নরম্যান্ডিতেও করেনি। এতকিছু বলার পরও, আমরা কুর্দিদের পছন্দ করি।

উত্তরণবার্তা/এআর
 



জহুর হকার মার্কেটে ভয়াবহ আগুন

  অক্টোবর ১৯, ২০১৯     ৫

দারুণ মজার থাই ক্যাশু চিকেন

  অক্টোবর ১৯, ২০১৯     ৫

পুরনো খবর