আগরতলায় বঙ্গবন্ধু জাদুঘর ও শহীদ মিনার স্থাপনের প্রস্তাব     হতাশা কাটিয়ে প্রস্তুত হচ্ছেন মেয়েরা     মেট্রোরেলের নিরাপত্তায় পুলিশের ইউনিট গঠনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর     সিনিয়র সচিব হলেন আরও ৪ জন     মানিলন্ডারিং প্রতিরোধে দুদক, রাজস্ব বোর্ড ও বিবি’র সমন্বয় প্রয়োজন : দুদক চেয়ারম্যান     আড়াই মাসে এক কোটির বেশি নাগরিককে ই-নামজারি সেবা দেয়া হয়েছে : সাইফুজ্জামান চৌধুরী     রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ব্রিটিশ এমপিদের সহায়তা চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী     বাদ সৌম্য, ফিরলেন রুবেল-শফিউল    

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে নিরাপত্তার দায়িত্ব মিয়ানমারের

  সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯     ১৪     ২২:৪৯     জাতীয় সংবাদ
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে আরো আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেছেন, ‘মিয়ানমারের দায়িত্ব তাদের নিরাপত্তা দেয়া। তারা যেন নিরাপদ বোধ করে নিজ দেশে ফিরে যায় সেই দায়িত্ব মিয়ানমারের।’

বুধবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) এসডিজি ৩ : সুস্বাস্থ্য ও কল্যাণবিষয়ক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা কাউকে জোর করে পাঠাব না। তবে আমরা চাই, তারা স্বেচ্ছায় তাদের দেশে ফিরে যাক।’

রোহিঙ্গাদের ফেলে আসা বিধ্বস্ত ঘরবাড়ি অপসারণ করে সেখানে তাদের জন্য আশ্রয়কেন্দ্র বানানো হচ্ছে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে এমন দাবি করেছে মিয়ানমার। এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের জন্য ঘরবাড়ি বানানোর আগেই তাদের ফিরিয়ে নেয়া উচিত।’

এ সময় ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধকালে ভারতে আশ্রয় নেয়া বাংলাদেশি শরণার্থীদের উদাহরণ টেনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের শরণার্থীদের ফিরিয়ে আনার সময় ঘরবাড়ির কথা ভাবা হয়নি। ফিরে এসে নিজেরাই ঘরবাড়ি তৈরি করে নিয়েছেন তারা।’

এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ‘ভাষানচরে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের স্থানান্তরের বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা সবসময়ই বলে আসছি রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন কিংবা স্থানান্তর কোনোটাই আমরা জোর করে করব না। তবে আমরা আশা করব, মিয়ানমার এই সমস্যা সমাধানে আন্তরিকতার পরিচয় দেবে।’

উত্তরণবার্তা/এআর



পুরনো খবর