আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় সরকার সব করছে: প্রধানমন্ত্রী     আজ জিতলেই ফাইনালে বাংলাদেশ     পদ্মা সেতুতে বসলো ২২তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৩৩০০ মিটার     ভারতে শিরোপা জিতলো বাংলাদেশের মেয়েরা     সংসদে ৮ হাজার ঋণখেলাপির তালিকা প্রকাশ     ভোটেও চমৎকার পরিবেশ বজায় থাকবে: আইজিপি     নির্বাচনের দায়িত্ব পালনে অবহেলা করা হলে ছাড় দেয়া হবে না : সিইসি     বিএসএমএমইউয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী ও মুজিব বর্ষের বছরব্যাপী কর্মসূচি    

বেন স্টোকস নন, ‘স্যার’ উপাধি পাচ্ছেন অন্য দুই ক্রিকেটার

  সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯     ২০৯     ২১:৪০     ক্রীড়া
--

উত্তরণবার্তা ক্রীড়া ডেস্ক : ১৪ জুলাই লর্ডসে অবিশ্বাস্য ইনিংস খেলে ইংল্যান্ডকে প্রথমবারেরমত বিশ্বকাপ জেতানোয় অবদান রাখার পরই তখন ইংল্যান্ডের সম্ভাব্য দুই প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী বরিস জনসন এবং জেরেমে হান্ট ঘোষণা দিয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রী হতে পারলে বেন স্টোকসকে নাইটহুড উপাধি দেবেন। এরপর আবার হেডিংলিতে অবিশ্বাস্য ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঐতিহাসিক এক টেস্ট জয় করার পরও দাবি উঠেছিল স্টোকসকে নাইটহুড উপাধি দেয়া হোক।
কিন্তু সেই বেন স্টোকস নন, নাইটহুড উপাধি দেয়ার জন্য বেছে নেয়া হয়েছে সাবেক দুই ইংলিশ ক্রিকেটার অ্যান্ড্রু স্ট্রাউস এবং জেফ্রি বয়কটকে। সাবেক দুই ইংলিশ অধিনায়কের নাম অবশ্য প্রস্তাব করে গেছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। সে তালিকা ধরেই নাইটহুড উপাধি দেয়া হচ্ছে সাবেক দুই ক্রিকেটারকে।
২০০৪ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে ১০০ টেস্ট খেলা স্ট্রাউস ৭ হাজারের বেশি রান করেছেন। ইংল্যান্ডকে দু’টি অ্যাশেজ সিরিজ জয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন। খেলা ছাড়ার পরও জড়িত রয়েছেন ইংলিশ ক্রিকেটের সঙ্গে। ডিরেক্টর হিসেবে ইংল্যান্ড ক্রিকেটের উন্নতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালণ করেছেন তিনি।
শুধু তাই নয়, এবার নেপথ্যে থেকে ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ের ব্লুপ্রিন্ট তৈরির কাজেও ছিলেন স্ট্রাউসই। স্ত্রী’র মৃত্যুর পর তার নামাঙ্কিত ক্যান্সার ফাউন্ডেশন নিয়ে সমাজসেবামূলক কাজে নিজেকে যুক্ত রেখেছেন অ্যান্ড্রু স্ট্রাউস।
জেফ্রি বয়কটের নাইটহুড পাওয়া অবশ্য বিতর্কের বাইরে নয়। ক্রিকেটার হিসেবে বয়কটের অবদান নিয়ে কারও মনে কোনও সংশয় নেই। কিন্তু নানা সময়ে বিতর্কেরও জন্ম দিয়েছেন তিনি। কখনও বান্ধবীকে নিগ্রহের জন্য শিরোনাম হয়েছেন। আবার কখনও নাইটহুড নিয়ে বিদ্রুপ করায় তাকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হয়েছে।
২০১৭ সালে ক্রিকেটারদের নাইটহুড হওয়া প্রসঙ্গে বয়কট মন্তব্য করেছিলেন যে, ‘স্যার’ হতে গেলে গায়ের চামড়ায় কালো করতে হবে। অর্থাৎ তার ইঙ্গিত ছিল বহু ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটারের নাইট উপাধি পাওয়ার দিকে।
এই জেফ্রি বয়কট ১৯৬৪ থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত ইংল্যান্ডের হয়ে ১০৮টি টেস্ট খেলেছেন। প্রথম ইংলিশ ক্রিকেটার হিসেবে ৮ হাজার টেস্ট রান পূর্ণ করেন তিনি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১৫১টি সেঞ্চুরি রয়েছে তার। ১৯৭৮ সালে মাইক ব্রেয়ারলি চোট পেলে তার জায়গায় ইংল্যান্ডকে চারটি টেস্টে নেতৃত্ব দেন বয়কট।
সর্বশেষ ইংলিশ ক্রিকেটার হিসেবে নাইট পেয়েছিলেন অ্যালিস্টার কুক। এ পর্যন্ত ইংল্যান্ডের মোট ১১জন ক্রিকেটার স্যার উপাধি পেয়েছেন। স্ট্রাউস এবং বয়কটসহ সেই সংখ্যাটা দাঁড়াবে ১৩ জনে। এছাড়া ওয়েস্টইন্ডিজের ১১ জন এবং অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের একজন করে ক্রিকেটার নাইটহুড পেয়েছেন।
বলাবাহুল্য, অস্ট্রেলিয়ার সেই প্রখ্যাত ক্রিকেটার হলেন স্যার ডন ব্র্যাডম্যান। নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার হিসেবে স্যার উপাধি পেয়েছেন রিচার্ড হ্যাডলি।
উত্তরণবার্তা/অআ



আগুনে পুড়ে ছাই হলো ভাইবোন

  জানুয়ারি ২৩, ২০২০

ধর্ষণের প্রতিবাদ করায় খুন

  জানুয়ারি ২৩, ২০২০

শ্রাবন্তীর ভিডিও ফাঁস করলেন স্বামী

  জানুয়ারী ২৩, ২০২০     ৪৫৩

মার্চে আসছে কম দামি আইফোন

  জানুয়ারী ২৩, ২০২০     ৫৮

আজ জিতলেই ফাইনালে বাংলাদেশ

  জানুয়ারী ২৩, ২০২০     ১৭

ঢাকায় দিনে গরম রাতে শীত

  জানুয়ারী ২৩, ২০২০     ১২

পুরনো খবর