জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের মর্যাদা সমুন্নত রাখতে হবে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা     শাহজালালে ইয়াবা ও সিগারেটসহ ২ যাত্রী আটক     শেখ হাসিনাকে অভিবাদন জানালেন সুষমা স্বরাজ     নিউইয়র্কে বিশ্বনেতাদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে শেখ হাসিনা     ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক এমডিসহ ৬ কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ     সাবেক প্রধান বিচারপতি সিনহা বিচার বিভাগের ভাবমূর্তি নষ্ট করছেন : এটর্নি জেনারেল     ফ্ল্যাট কিনতে ৫% সুদে ঋণ পাবেন সরকারি কর্মচারীরা     ডিএসসিসির বিশ্ব রেকর্ড বঙ্গবন্ধুর প্রতি উৎসর্গ    

বন্ধ্যাত্ব ঘোচাতে চায় নিউজিল্যান্ড; রেকর্ড অব্যাহত রাখতে চায় ইংল্যান্ড

  মার্চ ২০, ২০১৮     ২৩৬          ক্রীড়া
--

সর্বশেষ ১৯৯৯ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জয় করেছিল নিউজিল্যান্ড। এরপর সাতটি টেস্ট সিরিজে কোনটিই জিততে পারেনি কিউইরা। তাই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১৯ বছর টেস্ট সিরিজ জিততে না পারার বন্ধ্যাত্ব এবার ঘোচাতে চায় কিউইরা। তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুর্দান্ত রেকর্ড ধরে রাখতে বদ্ধ পরিকর ইংল্যান্ড। এমন লক্ষ্য নিয়ে আাগামী ২২ মার্চ থেকে শুরু হওয়া সিরিজের প্রথম টেস্টে মুখোমুখি হচ্ছে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড। দু’ম্যাচ সিরিজের প্রথমটি অকল্যান্ডে শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টায়। তবে টেস্টটি দিবা-রাত্রির। এই প্রথমবারের মতো দিবা-রাত্রির টেস্টে একে অপরের বিপক্ষে লড়বে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড।
১৯৩০ সাল থেকে টেস্ট সিরিজ খেলছে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড। দ্বিপক্ষীয় লড়াই শুরুর পর ২০টি সিরিজে কোন জয় পায়নি নিউজিল্যান্ড। প্রথম ২০টি সিরিজের মধ্যে ১৫টি জিতে নেয় ইংলিশরা। ৫টি হয় ড্র। ১৯৮৪ সালে নিজ মাটিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট সিরিজ জয়ের স্বাদ নেয় নিউজিল্যান্ড। এরপর ১৯৮৬ সালে ইংল্যান্ড সফরে গিয়ে আবারো সিরিজ জিতে নেয় কিউইরা। এরপর আবারো থমকে যায় নিউজিল্যান্ডের জয়রথ। কারন এরপর পাঁচটি সিরিজের মধ্যে ৪টিতে জিতে ইংল্যান্ড। তবে ১৯৯৯ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আবারো টেস্ট সিরিজ জিতে সফরকারী নিউজিল্যান্ড। এরপর আজ অবধি সাতটি সিরিজের মধ্যে কোনটিতেই জিততে পারেনি কিউইরা। এর মধ্যে ৪টি জিতে ইংল্যান্ড, ৩টি হয় ড্র।
উপরের পরিসংখ্যান বলছে ১৯ বছর হয়ে গেল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জিততে পারছে না নিউজিল্যান্ড। তবে এবার সেই আক্ষেপ ঘুচানোর পালা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিতে বন্ধ্যাত্ব ঘোচাতে চাওয়া নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন বলেন, ‘ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দীর্ঘদিন ধরে সিরিজ জিততে পারছি না আমরা। এটি খুবই হতাশার একটি রেকর্ড। এবার সিরিজ জয়ের স্বাদ নিতে চাই আমরা। এবার আমাদের ভালো সুযোগ রয়েছে সিরিজ জয়ের। নিজেদের কন্ডিশনের সুবিধা কাজে লাগানোর পাশাপাশি প্রতিপক্ষের সাম্প্রতিক পারফরমেন্স আমাদের সুযোগ তৈরি করেছে। ইংল্যান্ড সর্বশেষ টেস্ট সিরিজে (অ্যাশেজ) অস্ট্রেলিয়ার কাছে বাজেভাবে হেরেছে। তাই তারা এখন চাপে রয়েছে। তাদেরকে হারাতে আমাদের সামনে এটাই ভঅর সুযোগ। এ ছাড়া আমাদের খেলোয়াড়রাও খেলার মধ্যে এবং ফর্মে রয়েছে।’
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের দুর্দান্ত রেকর্ড। এটি ধরে রাখার প্রত্যয় নিয়ে টেস্ট সিরিজ শুরু করছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট, ‘রেকর্ড দেখলে বুঝা যায়- নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আমাদের সাফল্য বরাবরই ভালো। এবারও সেটি ধরে রাখতে হবে। আমরা চাই কিউইদের বিপক্ষে ভালো ক্রিকেট খেলতে এবং সিরিজ জিততে। সেটি করতে পারলে রেকর্ড আরও সম্মৃদ্ধি হবে। তবে আমাদের জন্য কাজটি সহজ হবে না। টেস্ট সিরিজে কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে। তবে আশা করছি, সতীর্থরা ভালে পারফরমেন্স করতে পারবে। কারণ, অতীত রেকর্ড আমাদের সাহস ও আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে।’
গেলো ডিসেম্বরে দেশের মাটিতে সর্বশেষ টেস্ট সিরিজ খেলেছিলো নিউজিল্যান্ড। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচের সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতেছিলো তারা। তবে অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৪-০ ব্যবধানে হেরে এখানে খেলতে হবে ইংল্যান্ডকে। তারপরও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের জয় সাথে রয়েছে তাদের। টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে এখানে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে জিতেছে ইংল্যান্ড।
এছাড়া এই প্রথমবারের মত দিবা-রাত্রির টেস্টে মুখোমুখি হচ্ছে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের জন্য দ্বিতীয় হলেও, ইংল্যান্ডের জন্য তৃতীয় দিবা-রাত্রির টেস্ট হবে। ২০১৫ সালের ২৭ নভেম্বর প্রথম অনুষ্ঠিত হয় দিবা-রাত্রির ম্যাচ। ওই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয়েছিলো নিউজিল্যান্ড। অ্যাডিলেড ওভালে ম্যাচটি ৩ উইকেটে জিতেছিলো অসিরা।
এরপর আর ৭টি দিবা-রাত্রির ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। এরমধ্যে নিউজিল্যান্ড কোন ম্যাচে না থাকলেও দু’টি টেস্টে ছিলো ইংল্যান্ড। ২০১৭ সালের আগস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম এবং ডিসেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় দিবা-রাত্রির ম্যাচ খেলে ইংল্যান্ড। একমাত্র ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বার্মিংহামে ইনিংস ও ২০৯ রানে জয় পায় ইংলিশরা। এখন পর্যন্ত হওয়া ৮টি দিবা-রাত্রির ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এরমধ্যে ৭টি ম্যাচই জিতেছে স্বাগতিক দলরা।
নিউজিল্যান্ড দল : কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), টড অ্যাস্টল, ট্রেন্ট বোল্ট, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, ম্যাট হেনরি, টম লাথাম, হেনরি নিকোলস, জিত রাভাল, টিম সাউদি, রস টেইলর, নিল ওয়াগনার ও বিজে ওয়াটলিং।
ইংল্যান্ড দল : জো রুট (অধিনায়ক), মঈন আলী, জেমস এন্ডারসন, জনি বেয়ারস্টো, স্টুয়ার্ট ব্রড, অ্যালিষ্টার কুক, জ্যাক লিচ, বেন ফোকস, লিয়াম লিভিংস্টোন, ডেভিড মালান, ক্রেইগ ওভারটন, বেন স্টোকস, মার্ক স্টোনম্যান, জেমস ভিন্স, ক্রিস ওকস ও মার্ক উড।



নতুন আর্জেন্টিনা পুরনো ব্রাজিল

  সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৮     ৭৮১৫

যমজ লাল্টু-পল্টুর দাম ২০ লাখ

  আগস্ট ১২, ২০১৮     ৪৫৪৭

রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবলের সূচি

  জুন ০৬, ২০১৮     ৪২৩৮

পুরনো খবর