গণহত্যার কথা ফোরামে তুলবে জাতিসংঘ     এবার দেশেই হজযাত্রীদের ইমিগ্রেশন কার্যক্রম সম্পন্নের চেষ্টা : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী     ফখরুল ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা : হানিফ     ১১৭ উপজেলায় ভোট চলছে     রৌমারীতে ৩৫ হাজার মানুষের একটি ব্রীজের দীর্ঘদিনের দাবী     মক্কা-মদিনায় ক্রাইস্টচার্চের নিহতদের গায়েবানা জানাজা     মানবাধিকার সমুন্নত রাখতে সরকার কাজ করছে : গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী     নদী তীর দখলমুক্ত করতে উচ্ছেদ অভিযান আরো জোরদার করা হবে    

স্টার্টআপ খাতে সহায়তা করবে আইএফসি

  মে ২৫, ২০১৮     ২০২     ৭:৪০ অপরাহ্ণ     শিক্ষা
--

তথ্যপ্রযুক্তি  ডেস্ক : ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশন (আইএফসি) এর বাংলাদেশ, ভুটান এবং নেপালের কান্ট্রি ম্যানেজার ওয়েন্ডি জো ওয়ার্নার ইজেনারেশন লিমিটেডের কার্যালয় পরিদর্শন করেছেন। বুধবার রাজধানীর গুলশানে দেশের শীর্ষস্থানীয় সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবাদাতা এই প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয় পরিদর্শন করেন তিনি।

ইজেনারেশন আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ডাটা অ্যানালাইসিস, ব্লক চেইন এবং সাইবার সিকিউরিটির মতো সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে দক্ষ বিশেষজ্ঞ তৈরি করছে। একইসঙ্গে ইজেনারেশন স্টার্টআপে বিনিয়োগ কার্যক্রমে সম্পৃক্ত রয়েছে এবং ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি উদীয়মান প্রযুক্তি স্টার্টআপে বিনিয়োগ করেছে।

পরিদর্শনকালীন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ইজেনারেশন গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ফেনক্স ফেঞ্চার ক্যাপিটালের জেনারেল পার্টনার শামীম আহসান, ইজেনারেশন গ্রুপের নির্বাহী ভাইস চেয়ারম্যান এসএম আশরাফুল ইসলাম, জেমসক্লিপ ডটকমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন খান, বাগডুম ডটকমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মিরাজুল হক প্রমুখ। ইজেনারেশন গ্রুপ ও এর সহযোগি প্রতিষ্ঠানের বোর্ড মেম্বারদের সঙ্গে বৈঠকে প্রথম বাংলাদেশি সফটওয়্যার কোম্পানি হিসেবে আইপিওতে যাওয়ার প্রক্রিয়াধীন হওয়ায় ইজেনারেশনের ভূয়সী প্রশংসা করেন ওয়েন্ডি।

ওয়েন্ডি জো ওয়ার্নার বলেন, আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার সঙ্গে তাল মিলিয়ে টিকে থাকতে বাংলাদেশে ডিসরাপ্টিভ টেকনোলজি তৈরিতে দক্ষতা ও অবকাঠামো তৈরি ক্রমেই জরুরি হয়ে উঠছে, যা ধারাবাহিকভাবে জাতীয় অর্থনীতিতে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে। বাংলাদেশে প্রাইভেট খাতের টেকসই প্রবৃদ্ধির পাশাপাশি ব্যবসাকে সহজ করতে ইজেনারেশনের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করবে আইএফসি। দেশে স্টার্টআপ কোম্পানি বেড়ে উঠতে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরি ও ব্যবস্থাপনায় আইএফসির সহায়তার কথা নিশ্চিত করেন তিনি।

এসময় শামীম আহসান বলেন, ডিসরাপ্টিভ টেকনোলজি হলো পরবর্তী বড় বিষয় যাতে সকল আন্তর্জাতিক বাজার নজর রাখছে এবং এই প্রযুক্তি বাংলাদেশকে আরো উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে আমাদের কৌশল হিসেবে কাজ করবে। স্থানীয়ভাবে, ইজেনারেশন ও অন্যান্য কিছু কোম্পানি এই প্রযুক্তিতে দক্ষ বিশেষজ্ঞ তৈরি করছে। আমরা যদি আগামীর সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে চাই তাহলে আমাদের এই প্রযুক্তি গ্রহণ করা আবশ্যক। আইএফসির সহায়তার মাধ্যমে দেশে উদ্ভাবনী প্রযুক্তির প্রবৃদ্ধিতে আমরা আরো শক্তিশালীভাবে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল নিয়ন্ত্রক সংস্থার সঙ্গে কাজ করতে এবং বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরি করতে পারবো।

উত্তরণবার্তা/এআর



সন্তানই আমার সবকিছু হবে

  মার্চ ১৯, ২০১৯     ১৭৭

পুরনো খবর