ভোটের মাঠে আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু আজ     মাশরাফির স্মরণীয় ম্যাচে বাংলাদেশের জয়     মানবাধিকার সুরক্ষায় সবাইকে আরো কার্যকর ভূমিকা পালন করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী     আগামীকাল ভ্যাট দিবস     বিশ্ব মানবাধিকার দিবস আগামীকাল     সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে : রাষ্ট্রপতি     বিএনপি জামায়াত নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে : কামরুল ইসলাম     তামিমের উড়ন্ত ক্যাচ, মাশরাফির গর্জন    

শিরোপার সন্ধানে সন্ধ্যায় মাঠে নামছে বাংলাদেশ

  মার্চ ১৮, ২০১৮     ২৭০     ১১:০৫ পূর্বাহ্ন     ক্রীড়া
--

লঙ্কানদের হৃদয় চৌচির করে নিদাহাস কাপের ফাইনালে আজ ভারতের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। বহুজাতিক টুর্নামেন্টে প্রথম শিরোপা জয়ের স্বপ্ন এখন বাংলাদেশের ষোল কোটি মানুষের হৃদয়ে। 
 
ওয়ানডে কিংবা টি-টোয়েন্টি দুই ফরম্যাটেই বহুজাতিক সিরিজের ফাইনালে স্বপ্নভঙ্গের বেদনার সাক্ষী অনেকবার হয়েছে বাংলাদেশ। ২০০৯ ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ, ২০১২ এশিয়া কাপ, ২০১৬ এশিয়া কাপ (টি-টোয়েন্টি), ২০১৮ ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের ফাইনালে যার জলজ্যান্ত সাক্ষী।
 
প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামের ক্রিকেট একাডেমির নেটে ঘণ্টাখানেকের অনুশীলন শেষে গতকাল বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান জানালেন, অতীতের ফাইনালের এসব গল্প মাথায় নেই টাইগারদের। সেসব নিয়ে ভাবেইনি বাংলাদেশ দল! ম্যাচ কেন্দ্রিক নিজেদের চিন্তায় ফাইনালের রঙ, চাপ চড়াতে রাজি নন তিনি। দলের সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন চাপমুক্ত থাকার। প্রতিপক্ষ শক্তিশালী ভারত হলেও অধিনায়ক সাকিবের টার্গেট একটাই, সেটা নিদাহাস ট্রফির চ্যাম্পিয়ন হওয়া।
 
গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার বলেছেন, ‘তখন ওই সময় রিয়াদ ভাই অধিনায়ক ছিলেন। তিনি একটা লক্ষ্য পূরণ করে দিয়ে গেছেন। আমার সামনে নতুন লক্ষ্য। আমার জন্য লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন হওয়া। আগ থেকে কেউ বলতে পারবে না ফাইনাল খেলব বা চ্যাম্পিয়ন হব।’
 
অতীতের সবকটি হারলেও এখন ফাইনালে খেলায় অভিজ্ঞ বাংলাদেশ। আগের মতো শোকগাঁথা লেখার মঞ্চ চান না সাকিব। চাইছেন চাপমুক্ত থেকে আজ ফাইনাল খেলতে। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘আসলে এতকিছু আমরা চিন্তা করি নাই। এখনও আমাদের কোনো টিম মিটিং হয় নাই। আমরা এ ম্যাচ নিয়েও আলোচনা করি নাই। আমরা চেষ্টা করছি যতটা রিল্যাক্স থাকা যায়। এবং ওপেন মাইন্ডে থাকা যায়। কারণ আমার কাছে মনে হয়, টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ভালো রেজাল্ট করার জন্য ফ্রি থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এবং চাপমুক্ত থাকাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। তাই আশাকরি সবাই কোনো রকমের চাপ নিবে না। এবং শুধু খেলার প্রতি ফোকাস করবে।’
 
ট্রফি জিততে যা প্রয়োজন সবকিছুই করতে প্রস্তুত বাংলাদেশ। সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন জানিয়ে সাকিব বলেন, ‘চেষ্টা তো থাকবে ভালো ক্রিকেট খেলার। অবশ্যই চেষ্টা থাকবে জয়ের জন্য যা করার করব।’
 
বেশিরভাগ বেঞ্চের খেলোয়াড় নিয়ে অনুশীলন করেছেন সাকিব। আজ ফাইনালে বড় ম্যাচের চাপতত্ত্বকে দূরে সরিয়ে রাখতেই চেষ্টা করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘আমরা এখনো আলোচনাও করিনি। আমার কাছে মনে হয় না, এটা চাপ হিসেবে কেউ নিচ্ছে। চাপ হিসেবে নিলে চাপ, না নিলে চাপ নয়। নিশ্চিত সবাই নির্ভার আছে। এটা যদি কাল (আজ) ম্যাচ পর্যন্ত ধরে রাখতে পারি তাহলে সম্ভাবনা অনেক বেশি।’
 
সতীর্থদের প্রতি সাকিবের আহ্বান, ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ, ফাইনাল না ভেবে আরেকটা সাধারণ ম্যাচ হিসেবে বিবেচনা করতে। তার দৃষ্টিতে, আসল লড়াইটা হবে ব্যাটের সঙ্গে বলের। বাঁহাতি এ অলরাউন্ডার বলেছেন, ‘সবার মানসিকতা, চিন্তাধারা এক নয়। কারও প্রভাবিত করে, কারও করে না। আশা করব এটা যেন প্রভাব না ফেলে। তাহলে ভালো খেলার সম্ভাবনা বেশি। যদি মনেকরি ফাইনাল অনেক বড় ম্যাচ, ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ, তাহলে চাপ। এগুলো চিন্তা না করে বলের সঙ্গে ব্যাটের লড়াই হবে, সেদিকেই মনোযোগ থাকবে।’
 
প্রতিপক্ষ ভারত, দুই বছর আগের ব্যাঙ্গালুরুর স্মৃতি, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট— সব ভুলে আজ প্রেমাদাসায় ২২ গজের লড়াইয়ে ইতিহাস গড়ার জন্য নির্ভার থাকার চেষ্টাটাই বেশি বাংলাদেশ শিবিরে।



আগামীকাল ভ্যাট দিবস

  ডিসেম্বর ০৯, ২০১৮

নতুন আর্জেন্টিনা পুরনো ব্রাজিল

  সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৮     ৭৯৩৭

যমজ লাল্টু-পল্টুর দাম ২০ লাখ

  আগস্ট ১২, ২০১৮     ৪৬৬৪

রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবলের সূচি

  জুন ০৬, ২০১৮     ৪৪১২

পান খাওয়ার উপকারিতা

  অক্টোবর ১৫, ২০১৮     ২৩৯৭

পুরনো খবর