২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিতে আপিল করা হবে     আইভি রহমানের সমাধিতে আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা     গ্রেনেড হামলার মূলপরিকল্পনাকারীরা সর্বোচ্চ শাস্তি পাবে : সেতুমন্ত্রী     আইভী রহমানের ১৫তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ     সারাদেশে আনন্দোৎসবে জন্মাষ্টমী উদযাপিত     মোজাফফর আহমদের প্রতি শ্রদ্ধা জানালেন প্রধানমন্ত্রী     রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে শক্ত অবস্থানে যাবে বাংলাদেশ     ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে অবদান রাখায় এলজিআরডি মন্ত্রীকে সম্মাননা    

রোহিঙ্গা সংকট দক্ষিণ এশিয়ার জন্য সবচেয়ে বড় নিরাপত্তা হুমকি: গওহর রিজভী

  জুলাই ০৩, ২০১৯     ৩৭     ৭:৩১ অপরাহ্ণ     জাতীয় সংবাদ
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড.গওহর রিজভী বলেছেন, রোহিঙ্গা সংকট দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে ভবিষ্যতে সবচেয়ে বড় নিরাপত্তা হুমকি হিসেবে দেখা দেবে।
গওহর বলেন, ‘দীর্ঘমেয়াদী এই রোহিঙ্গা সংকট এখন শুধু বাংলাদেশের সংকট হিসেবে দেখা দেয়নি,বরং এটা এখন বৈশ্বিক সমস্যা হিসেবে দেখা দিেেয়ছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘মিয়ানমারে কি হচ্ছে? সেখানে যা হচ্ছে বিশ্বের সব দেশেরই তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়া উচিত।’
আজ রাজধানীর বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ (বিস) মিলনায়তনে এক সেমিনারের উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
বিস ‘আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক পরিবর্তনের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ-ভারত সহযোগিতা’ শীর্ষক এই সেমিনারের আয়োজন করে।
প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, নিছক স্থানীয়, জাতিগত বা ধর্মীয় সংঘাতের কারণে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে এই বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা আসেনি।
তিনি বলেন, ‘এটা সুপরিকল্পিত গণহত্যার ঘটনা। মিয়ানমার যা চায় এটা তারই বহিঃপ্রকাশ। মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ দেশটিকে চীনা বংশদ্ভুত বৌদ্ধদের মনে করে।’
ড. রিজভী আরো বলেন, তারা রোহিঙ্গাদের মুসলিমের বেশি কিছু মনে করেন না।
তিনি বলেন, মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ সংখ্যালঘু মুসলিমদের ওই ভূখ- থেকে উচ্ছেদ করার জন্য কয়েক দশক ধরে অনিয়মতান্ত্রিক ও সুপরিকল্পিতাভাবে কাজ করেছে।
গওহর বলেন, ‘মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ এ লক্ষ্যে তাদের সংবিধান পরিবর্তন করেছে। তারা রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্বহীন করেছে। রাতারাতিই এটা হয়নি। তবে আমি বলছি ঠা-া মাথায় গণহত্যার পরিকল্পনা করা হয়েছিল এবং এভাবেই মিয়ানমারের সংখ্যালঘুরা দেশত্যাগে বাধ্য হয়েছেন।’
রিজভী বলেন, ‘হ্যাঁ, রোহিঙ্গা সংকট আজ বাংলাদেশের একার সমস্যা, কিন্তু আগামীকাল এটা বৈশ্বিক সমস্যা হয়ে দাঁড়াবে।
তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের সীমান্ত দিয়ে রোহিঙ্গা জন¯্রােত দুই দেশের নিরাপত্তার জন্যও হুমকি হয়ে দাঁড়াবে।
প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যেই লক্ষ্য করেছি যে এই অঞ্চলে অস্ত্র আমদানি করা হচ্ছে। যদি আমরা সতর্ক না হই এবং আন্তর্জাতিকভাবে একসাথে কাজ না করি তবে সংকটটি এই অঞ্চলে বড় ধরনের অস্থিতিশীলতার কারণ হিসেবে দেখা দিবে।’
দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ব্যাপারে তিনি বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের সম্পর্ক উভয় দেশের জন্যই খুব গুরুত্বপূর্ণ। দ’ুটি দেশই তাদের মধ্যকার বিদ্যমান সম্পর্ককে আরো জোরদার করতে চায়।
আঞ্চলিক বাণিজ্যিক বিষয়েল প্রসঙ্গ উল্লেখ করে গওহর বলেন, বাণিজ্য অর্থনীতির একটি সূচক মাত্র, কিন্তু দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য সংশ্লিষ্ট আরো অনেক ইস্যু রয়েছে।
বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ সব সময়ই ভারতকে উৎসাহিত করে আসছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ অবশ্যই ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের পদক্ষেপে অংশ নিতে চায়।
আলোচনায় অংশ নিয়ে ভারতের ইনস্টিটিউট ফর ডিফেন্স স্টাডিজ অ্যান্ড এনালাইসিস (ইডসা)’র মহাপরিচালক অ্যাম্বাসেডর সুজন আর চিনয় বলেন, ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক অন্যান্য অনেক দেশের জন্য রোল মডেল।
ভারতের অনেক কোম্পানি ভবিষ্যতে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
বিস-এর চেয়ারম্যান অ্যাম্বাসেডর মুন্সি ফাইজ আহমেদের সভাপতিত্বে সেমিনারে উদ্বোধনী অধিবেশনে অন্যান্যের মাঝে এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল একেএম আব্দুর রহমানও বক্তব্য রাখেন।

উত্তরণবার্তা/দীন



টঙ্গীর কারখানায় আগুন

  আগস্ট ২৪, ২০১৯

ভিসা করতে যা যা জেনে রাখা জরুরি

  আগস্ট ২২, ২০১৯     ২২৭৫

ভিসা ছাড়াই বিদেশভ্রমণ

  আগস্ট ২২, ২০১৯     ১৬২৭

নার্স খুনের কারণ জানালেন সহকর্মী

  আগস্ট ২১, ২০১৯     ১৫২৭

কোরবানির মাংসের অন্যরকম হাট!

  আগস্ট ১৩, ২০১৯     ১৩৫৪

পুরনো খবর