আজ - রবিবার, ২০ মে ২০১৮, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ | ঢাকা সময়: ০৯:৪৭ অপরাহ্ন
বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলেও গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে : সেতুমন্ত্রী     ২ জুন থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট     আগামী নির্বাচনে বড় বিজয়ে আত্মবিশ্বাসী আওয়ামী লীগ     বঙ্গোপসাগরে ৬৫ দিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ     স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করে নজির স্থাপন করেছে বাংলাদেশ: স্পিকার     বরিশালে ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত     আন্তর্জাতিক একক ব্যবহার নিশ্চিত করা গেলে বাণিজ্য সহজীকরণের কাজ ত্বরান্বিত হবে : শেখ হাসিনা     একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে স্বাবলম্বী হচ্ছে গ্রামের হতদরিদ্র লাখো পরিবার    

সংগীত পরিচালক ও সুরকার বুলবুলের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

  মে ১৭, ২০১৮     ১০     ২:৫৪ অপরাহ্ণ     জাতীয় সংবাদ
-- নন্দিত সংগীত পরিচালক বুলবুলের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

উত্তরণ প্রতিবেদকঃ ছয় বছর ধরে গৃহবন্দি রয়েছেন নন্দিত সংগীত পরিচালক ও সুরকার আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল। ২০১২ সালে যুদ্ধাপরাধীর ট্রাইব্যুনালের কাঠগড়ায় সাক্ষী হিসেবে দাঁড়াতে হয়েছিল তাকে। তারই জের ধরে আততায়ীরা খুন করে তার ছোট ভাই মিরাজকে।

গৃহবন্দি আর ছোট ভাই হারানোর কষ্ট বুকে নিয়ে নীরবে-নিভৃতে একমাত্র ছেলেকে নিয়ে দিনযাপন করছিলেন তিনি। এরই মধ্যে জানা যায় হার্টের অসুখে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। তার হার্টে ৮টি ব্লক ধরা পড়েছে। শিগগিরই বাইপাস সার্জারি করানো হবে তার।

জানা গেছে আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের চিকিৎসার জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

নিজের ফেসবুকে এক দীর্ঘ স্ট্যাটাসে আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল নিজেই জানান তার অসুখের কথা। ফেসবুকের এ পোস্টটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে এলে তিনি আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের চিকিৎসার দায়িত্ব নেন।

বুলবুল লিখেছেন, ‘একটি ঘরে ৬ বছর গৃহবন্দি থাকতে থাকতে আমি আজ উল্লেখযোগ্যভাবে অসুস্থ। আমার হার্টে ৮টা ব্লক ধরা পড়েছে, এবং বাইপাস সার্জারি ছাড়া এর চিকিৎসা সম্ভব না। আগামী ১০ দিনের মধ্যে আমি আমার হার্টের সার্জারি করাতে প্রস্তুত রয়েছি।’

তিনি আরও জানান, সম্প্রতি ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতালের সিসিউতে চারদিন ভর্তি ছিলেন তিনি। এই খবরটা কেউই জানেন না শোবিজের!

রাষ্ট্রের হয়ে সাক্ষী দেয়ার জন্য ভাইকে হারিয়েছেন আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল। সেই ভাই খুনের বিচার চেয়েছিলেন তিনি রাষ্ট্রের কাছে, পাননি। উল্টো নিজেই হারিয়েছেন স্বাভাবিক জীবন-যাপনের আনন্দ।
(উত্তরণবার্তা/১৪৫১/আইস)



মিথ্যে বললেই ধরে ফেলবে মোবাইল!

  এপ্রিল ২১, ২০১৮     ১০৪৩

পুরাতুন খবর